অ্যাপল-গুগল প্রযুক্তিতেই যাচ্ছে যুক্তরাজ্য

আইটি: করোনাভাইরাস কনট্যাক্ট-ট্রেসিং অ্যাপে নিজস্ব প্রযুক্তি বাদ দিয়ে এবার অ্যাপল-গুগলের প্রযুক্তি ব্যবহারের কথা জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। অ্যাপলের আইফোনে নিজস্ব প্রযুক্তি ভালোভাবে কাজ না করায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। দেশ আবারও সচল করতে কনট্যাক্ট-ট্রেসিং অ্যাপের ওপর অনেকটাই নির্ভর করছে যুক্তরাজ্য।

শুরু থেকেই অ্যাপটি নিয়ে নানাবিধ সমস্যায় পড়েছে দেশটি। ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের (এনএইচএস) তৈরি অ্যাপটি মে মাসে চালু করার কথা থাকলেও সেটা সম্ভব হয়নি। অ্যাপলকেই কিছুটা দোষারোপ করেছেন যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক। এনএইচএস অ্যাপে ইতোমধ্যেই যে কাজ হয়েছে তা থেকে ডেটা সংরক্ষণে বিকেন্দ্রিক অ্যাপল-গুগল মডেল সুবিধা পাবে বলেও জানিয়েছেন হ্যানকক। হ্যানককের বলছেন, “আমাদের অ্যাপ কাজ করছে না, কারণ অ্যাপল তাদের ব্যবস্থা বদলাবে না।

কিন্তু এটি (এনএইচএস অ্যাপ) দূরত্ব মাপতে পারে। আর তাদের অ্যাপ ভালোভাবে দূরত্ব মাপতে পারে না, আমাদের মান অনুযায়ী।” “তাই আমরা অ্যাপল এবং গুগলের সঙ্গে হাত মেলাতে সম্মতি দিয়েছি, যাতে উভয় ব্যবস্থা সবচেয়ে ভালো দিকগুলো কাজে লাগানো যায়,” যোগ করেন হ্যানকক। যুক্তরাজ্যের কনট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপ পরীক্ষার দ্বিতীয় সপ্তাহে দেখা গেছে, প্রথম দুই সপ্তাহে ৮৫ হাজার আক্রান্ত ব্যক্তিকে শনাক্ত করা গেছে। তবে, এখনও ২৫ শতাংশের বেশি আক্রান্ত ব্যক্তিকে শনাক্ত করতে পারেনি অ্যাপটি।

পরীক্ষা কার্যক্রম চালানো কর্মকর্তারা স্বীকার করেছেন যে, পথ বদলানোর এই পদক্ষেপ পরিকল্পিত নয়। তবে, এটি যে একটি বাধা তা স্বীকার করেননি কর্মকর্তারা। যুক্তরাজ্যের কর্মকর্তারা এমনটাও বলেছেন যে, নির্ধারিত মানে না পৌঁছালে তারা কোনো অ্যাপ উন্মুক্ত করবেন না। এদিকে যুক্তরাজ্যের বিরোধী দলীয় লেবর পার্টির দাবি, এটি একটি সতর্ক বার্তা যে যুক্তরাজ্যে নিজস্ব অ্যাপে মনযোগ দেওয়া হয়নি। “এতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই, সরকারের ধীর পদক্ষেপ এবং বাজে ব্যবস্থাপনার এটি আরেকটি উদাহরণ।

এর মানে মূল্যবান সময় এবং অর্থ নষ্ট হয়েছে।” ইতালি, সুইজারল্যান্ড, জার্মানি এবং অস্ট্রিয়াসহ ইউরোপের দেশগুলোতে অ্যাপল-গুগলের প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়ে চলেছে। এবার একই পথে হাঁটছে যুক্তরাজ্য।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *