অ্যামাজনের সুরক্ষায় ৭ লাতিন দেশের চুক্তি

বিদেশ : অ্যামাজনের নদী অববাহিকার সুরক্ষার ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে সম্মত হয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার সাতটি দেশ। রেকর্ড সংখ্যক আগুনের ঘটনায় হুমকিতে রয়েছে ‘পৃথিবীর ফুসফুস’খ্যাত এই বনের ভবিষ্যত। এমন পরিস্থিতিতে কলম্বিয়ায় অনুষ্ঠিত এক সম্মেলনে অ্যামাজন বনভূমির সুরক্ষায় কাজ করতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ব্রাজিল ছাড়াও চুক্তিতে সই করা অন্য দেশগুলো হলো: বলিভিয়া, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, গায়ানা, পেরু ও সুরিনাম।

এ বছর এখন পর্যন্ত ব্রাজিলে প্রায় ৮০ হাজার আগুনের ঘটনা শনাক্ত হয়েছে। এর অর্ধেকেরও বেশি আগুন অ্যামাজন বনাঞ্চলের। পরিবেশবিদেরা দাবি করছেন, এসব অগ্নিকা- মানবসৃষ্ট। কৃষির জন্য বন ধ্বংস ও পশু চারণের জন্য আগুন লাগানো হচ্ছে।

আর এদের সমর্থন দিচ্ছেন দেশটির উগ্র ডানপন্থী প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারো। বিভিন্ন স্থানে ভয়াবহ আগুনের কু-লী সৃষ্টি হওয়ার পর কেন্দ্রীয় সরকারের শরণাপন্ন হয়েছে ছয়টি প্রদেশ। এ ছাড়া আগুন নিয়ন্ত্রণে সামরিক বাহিনীর সহায়তা চাইছে।

এরমধ্যে রন্ডোনিয়া প্রদেশে সামরিক বাহিনীর বিমান থেকে পানি ঢালার কাজ চলমান রয়েছে। কলম্বো সম্মেলনে দক্ষিণ আমেরিয়ার সাতটি দেশ নতুন বনায়নে কাজ করতে সম্মত হয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। চুক্তিতে দুর্যোগ মোকাবিলা নেটওয়ার্ক ও স্যাটেলাইট নজরদারির কথা বলা হয়েছে। কলম্বোর লেটিসিয়া শহরে এ শীর্ষ সম্মেলন আহবান করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইভান দুকে। তিনি বলেন, ‘বৈঠকটি বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ অ্যামাজন অঞ্চলের প্রেসিডেন্টের মধ্যে সমন্বয় সাধনের ব্যবস্থা করবে।’পেরুর প্রেসিডেন্ট মার্টিন ভিজকারা বলেছেন, ‘এখন আর সদিচ্ছাই যথেষ্ট নয়।’

সম্মেলনে বনভূমি রক্ষার ক্ষেত্রে সচেতনতা বৃদ্ধি আর আদিবাসী সম্প্রদায়ের ভূমিকা বাড়ানোর ব্যাপারে সম্মত হয় ৭ দেশ। দক্ষিণ আমেরিকার এ সাতটি দেশের প্রেসিডেন্ট, ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং মন্ত্রীরা লেটিসিয়ার এ সম্মেলনে নিজ নিজ দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

অস্ত্রোপচারের জন্য প্রস্তুতি নেওয়ায় কথা জানিয়ে সম্মেলনে অনুপস্থিত ছিলেন বলসোনারো। তবে ভিডিও’র মাধ্যমে সম্মেলনে অংশ নেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *