‘আটকে রাখা ১০ ভারতীয় সেনাকে ছাড়ল’ চীন

বিদেশ : লাদাখ সীমান্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের কয়েকদিন পর আটকে রাখা ১০ ভারতীয় সেনাকে চীন ছেড়ে দিয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতের গণমাধ্যম। ছাড়া পাওয়াদের মধ্যে একজন লেফটেনেন্ট কর্নেল এবং তিনজন মেজর আছেন বলে ভারতীয় সামরিক বাহিনীর বেশ কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু জানিয়েছে।

বুধবার দুই পক্ষের আলোচনায় আটক ভারতীয় সেনাদের মুক্তির বিষয়টি প্রাধান্য পেয়েছিল; এরপরই বৃহস্পতিবার তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। ‘সেনাসদস্যদের ছাড়া পাওয়ার’ খবরটি নয়া দিল্লি নিশ্চিত করেনি। ভারতের কোনো সৈন্য ‘নিখোঁজ’ ছিল কিনা, তাও জানায়নি তারা। সোমবার গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনের মধ্যে হওয়া রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে অন্তত ২০ ভারতীয় সেনা নিহত ও ৭৬ জন আহত হয়েছে বলে জানায় নয়া দিল্লি।

সংঘর্ষে চীনের হতাহতের সংখ্যাও ব্যাপক বলে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো দাবি করলেও বেইজিং এ বিষয়ে মুখ খোলেনি। সংঘর্ষের জন্য দুই পক্ষই একে অপরকে দুষলেও উত্তেজনা প্রশমনে সেনাবাহিনী পর্যায়ে বৈঠক অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার। বিবিসি জানিয়েছে, সোমবার লাদাখ সীমান্তে সংঘর্ষে চীনের সেনারা চারপাশে বড় বড় পেরেক লাগানো লোহার রডকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ ভারতীয় সেনাদের। এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহারকে ‘বর্বরতা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন ভারতীয় প্রতিরক্ষা বিশ্লেষক অজয় শুক্লা।

১৯৯৬ সালে হওয়া চুক্তিতে ভারত ও চীন লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল (এলএসি) বা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা ঘিরে একে অপরের বিরুদ্ধে আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক ব্যবহার না করতে সম্মত হয়েছিল। সাড়ে চার দশক ধরে সীমান্তে দুই পক্ষের সেনাদের মধ্যে মারামারি ও ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটলেও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেনি। উত্তেজনা প্রশমনে আলোচনার পাশাপাশি ভারত ও চীন লাদাখ সীমান্ত ঘিরে শক্তি বাড়াচ্ছে বলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *