আটঘরিয়ার পল্লীতে মাদরাসার ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ 

পিপ (পাবনা) : পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার একদন্ত ইউনিয়নের নয়নগর (বেলদহ) গ্রামে দীর্ঘ দিন ধরে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে রুহুল আমিন ওরফে রুবেল নামক এক লম্পট কর্তৃক মাদরাসার ছাত্রীকে ধর্ষণ। এঘটনায় আটঘরিয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা নং ০৯।

এজাহার ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শাহাদত হোসেনের মেয়ে চৌবাড়ীয়া দাখিল মাদরাসার দশম শ্রেনীর ছাত্রীর সাথে দীর্ঘ ৪বছর ধরে একই গ্রামের আব্দুস সালাম প্রামানিকের লম্পট ছেলে রুহুল আমিন ওরফে রুবেল সুকৌশলে কু-প্রস্তাব ও প্রেম প্রস্তাব দিত। একপর্যায়ে মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে অবৈধ সর্ম্পক গড়ে তোলেন লম্পট রুহুল আমিন রুবেল। গত ২৩ জুন সহযোগি বিল্পব হোসেন তার স্ত্রীকে কৌশলে বাড়ী থেকে অন্য বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। এই সুযোগে বাড়ী ফাকা পেয়ে বিল্পব হোসেন ওই মেয়েকে বিয়ে দেয়ার কথা বলে ডেকে এনে ঘরের ভেতর জায়গা করে দেয়।

এসময় লম্পট রুহুল আমিন ওরফে রুবেল সুযোগ পেয়ে ঐ বাড়িতে গিয়ে উক্ত মেয়েকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। এসময় শাহাদত হোসেন মেয়েকে বাড়িতে না পেয়ে খুজতে খুজতে সহযোগি বিল্পবের বাড়িতে যায়। সেখানে রুবেল মেয়েকে অশ্লীল ও বিবস্ত্র অবস্থায় দেখতে পেয়ে মেয়েকে বাড়িতে নিয়ে আসে। ঘটনাটি জানা জানি হলে গ্রাম্য প্রধানদের কাছে তার মেয়ের সুষ্ঠ বিচার না পেয়ে গত ২৮/০৬/২০২০ইং আটঘরিয়া থানায় ধারা ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী /০৩) এর ৯ (১) মামলা রজু করা হয়েছে।

বাদী শাহাদত হোসাইন জানান, এই ঘটনার পর থেকে আসামী পক্ষ ধর্ষিতার পরিবারকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *