আটঘরিয়ার মাজপাড়ায় খাস জমি দখল করে পুকুর খননের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : পাবনার আটঘরিয়ার মাজপাড়া পূর্বপাড়া মৌজায় সরকারি প্রায় ১২ বিঘা জমি দখল করে পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে। সরকারি নিয়ম নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে আব্দুল কাদের খান গংয়েরা ভেকু দিয়ে মাটি কেটে পুকুর খনন করে চলেছেন বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন।
সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলার মাজপাড়া পূর্বপাড়া ভকেশনাল স্কুলের সাথে ঐ এলাকার প্রভাবশালী আব্দুল কাদের খান গংয়েরা প্রায় এক মাস ব্যাপী সরকারি ও ব্যক্তি মালিকাধীন ১২ বিঘা জমির উপর পুকুর খনন করে চলেছেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, সরকারি নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে পূর্বপাড়া মৌজার ৮ একর ২৮ শতাংশ দখল করে ভেকু দিয়ে ইতোমধ্যে প্রায় পুকুর খনন শেষ পর্যায়ে রয়েছে। অপরদিকে পূর্বপাড়া মৌজার দক্ষিণপাড়ে ১নং ‘ক’ খতিয়ানে সরকারি খাস ৩৫ শতাংশ জমিও আব্দুল করিম গংয়েরা পুকুর খনন সম্পন্ন করেছে। এদিকে ব্যক্তি মালিকাধীন মাজপাড়া গ্রামের মৃত জাহের আলী সেখের ৩৭ শতাংশ জমি দখল করে নিয়েছেন।

গ্রামবাসী অভিযোগ করে বলেন, আব্দুল কাদের খান গংদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন তারা। কোন নিষেধ মানছেন না তারা। এতে তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মাজাপাড়া গ্রামের বদর উদ্দিন, আসমত মন্ডল বলেন, শুধু খাস খতিয়ান সম্পত্তিই নয়। আব্দুল কাদের গং ও তার লাঠিয়াল বাহীনি তাদের নিজ নামীয় সম্পত্তিও দখলে নিয়ে সরকারি নিয়মনীতি না মেনে ভেকু মেশিন দিয়ে পুকুর খনন করে চলেছেন। দ্রুত তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মাজাপাড়া গ্রামের মৃত মৃত জাহের আলী সেখের ছেলে আলমঙ্ঘীর শেখ বলেন, তাদের নিজ নামীয় ৩৫ শতাংশ জমি দখল করে নেওয়ায় তিনি বাদী হয়ে আদালতে মামলা করেছেন। মামলা নং ১৯৮/২০১৮। এর পরেও মামলার কোন তোয়াক্কা না করে পুকুর খনন করে চলেছেন।

এদিকে ঐ গ্রামের হোসেন আলী অভিযোগ করে বলেন, ভূমিহীন আব্দুল হামিদ সরকারি খাস জমির উপর বাড়ী করে আছেন দীর্ঘদিন যাবৎ কিন্তু আব্দুল কাদের খান, তার ছেলে ছেলে নান্নু খান, রন্জু খান, ভাসতে রবিউল খান, মধু খান, নাতী জুয়েল, জসিম তাকে ঐ সরকারি খাস জমি থেকে বাড়ি তুলে দেওয়ার জন্য হুমকি দিয়ে চলেছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আব্দুল কাদের খান সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় মাজপাড়া সহকারী উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা বলেন, খাস জমি দখল করে থাকলে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এদিকে সম্পতি অবৈধভাবে ভেকু দিয়ে পুকুর খনন করার অভিযোগে আটঘরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উম্মে তাবাসুম ভেকু মেশিনের ব্যাটারী আটক করেছেন।

তবে এলাকাবাসীর দাবী খাস খতিয়ানের জমি অবৈর্ধ দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধার করে পয়োজনীয় ব্যবস্থার জোর দাবী জানিয়েছেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *