আটঘরিয়ায় চিকনাই নদীতে নৌকা বাইচ ফাইনাল প্রতিযোগীতা

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাবনার আটঘরিয়ার চিকনাই নদীতে ১৫ দিন ব্যাপী হয়ে গেলো গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ এর ফাইনাল প্রতিযোগীতা। আর এই নৌকা বাইচ দেখতে দুর দুরান্ত থেকে নানা বয়সী হাজারো দর্শনার্থীর সমাগম ঘটে চিকনাই নদীর দুই কুলে।
চিরচাইত গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী উৎসব নৌকা বাইচ। এখনো মানুষ লালন করে প্রাণের এই উৎসবকে। যা বোঝা যায় নদীপাড়ে এমন জমায়েত দেখে। দেশীও ঐতিহ্যকে ধরে রাখার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের চিত্র বিনোদনের জন্য পাবনার আটঘরিয়া গোরুরী বাজার সংলগ্ন চিকনাই নদীতে প্রতি বছরই নৌকা বাইচ করে আসছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসী। নদীপাড়ে মাঝিমাল্লাদের বৈঠার উঠানামায় উদ্বেলীত করেছে দর্শকদের। আর এই নৌকা বাইচ দেখে মুগ্ধ দুরদুরান্ত থেকে আগত দর্শকেরাও। হারিয়ে যাওয়া ঐত্যিবাহী নৌকা বাইচ প্রতি বছরই আয়োজন অব্যাহত থাকবে এমনি প্রত্যাশা দর্শনার্থীদের আর নৌকা বাইচে অংশ নিতে পেরে মাঝিমাল্লারাও বেশ খুশি।
নৌকা বাইচের আয়োজক আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন পাবনা রিপোর্টকে বলেন, প্রতি বছরই এই বাইচ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়। এই উৎসবকে টিকিয়ে রাখতে প্রতি বছরই এই আয়োজন অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।
আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আকরাম আলী পাবনা রিপোর্টকে জানান, এই প্রতিযোগীতা হারিয়ে যেতে বসেছে। গ্রামবাংলার এসব প্রতিযোগীতা টিকিয়ে রাখতে তাদের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।
১৫ দিন ব্যাপী এই প্রতিযোগীতায় পাবনা সদর, আটঘরিয়া, চাটমোহর, ভাঙ্গুড়া ও ফরিদপুর উপজেলার প্রায় অর্ধশতাধিক নৌকা বাইচ দল অংশ নেয়। বৃহস্প্রতিবার ফাইনাল প্রতিযোগীতায় বাংলার দুলদুল প্রথম ও পবাখালি এক্সপ্রেস দ্বিতীয় হন।
আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতনের সভাপতিত্বে ফাইনাল বাইচ প্রতিযোগীতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আকরাম আলী, বিশেষ অতিথি ছিলেন দেবোত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহায়মীন হোসেন চঞ্চল, আটঘরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি খাইরুল ইসলাম বাসিদ। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মওলা পান্নু, যুবলীগ নেতা নাছিমসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের দলের নেতৃবৃন্দ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *