আটঘরিয়ায় শ্রমিকলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে আনীত ডাকাতির অভিযোগ মিথ্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক : পাবনার আটঘরিয়ায় শ্রমিকলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে ডাকাতির অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। শনিবার আটঘরিয়া পৌরসভায় এক শালিসী বৈঠকে তা প্রমানিত হয়। এই বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র শহিদুল ইসলাম রতন। ঘটনাটি উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বুলবুল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলামকে জড়িতে করে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে এলাকায় কূৎসা রটনা করে একটি পক্ষ।

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, আটঘরিয়া পৌর এলাকার রোস্তমপুর হাজিপাড়া গ্রামে ২৫ বছর সাংসরিক জীবনে জনৈক ব্যক্তি তার স্ত্রীকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ডিভোস প্রদান করেন। এই ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে সম্প্রতি উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বুলবুল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে ডিভোস দেওয়া স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পূর্ণরায় বিয়ের ব্যবস্থা করেন। এতেই রোস্তমপুর হাজিপাড়া মহল্লার শেখ মো: শাহাজ উদ্দিনের ছেলে কোরিয়া প্রবাসী শেখ মো: আব্দুর রশিদের সাথে বুলবুল, কামরুল ও এলাকাবাসীর মধ্যে কথাকাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে বুলবুল, কামরুলসহ ৭ থেকে ৮জনের নামে ডাকাতির অভিযোগ তোলেন। এ ঘটনায় ২৭ মে গ্রাম্য শালিস বৈঠক বসে। এই শালিস বৈঠক মুলতবি করে শনিবার (৩০ মে) আটঘরিয়া পৌরসভায় মেয়র শহিদুল ইসলাম রতনের সভাপতিত্বে পৌরসভায় এক শালিসী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই বৈঠকে আটঘরিয়ায় উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে ডাকাতির অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।

এ ব্যাপারে রোস্তমপুর হাজিপাড়া মহল্লার শেখ মো: শাহাজ উদ্দিনের ছেলে কোরিয়া প্রবাসী শেখ মো: আব্দুর রশিদ বলেন, আসলে সেদিন কোন ডাকাতির ঘটনা ঘটেনি। তবে তিনি বলেন, তাদের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাটি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির ঘটনা ঘটেছে। এটি মিমাংসা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র শহিদুল ইসলাম রতন বলেন, বিষয়টি উভয় পক্ষের মধ্যে সমঝোতা করে দেওয়া হয়েছে। আসলে সেদিন যা ঘটেছিলো এটি একটি বিয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে।

শালিসী বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জহুরুল হক, আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম মুকুল, যুবলীগ নেতা আহসানউল্লাহ, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মওলা পান্নুসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে আটঘরিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বুলবুল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে গত ২৩ মে’র ঘটনায় ভিন্ন খ্যাতে প্রবাহীত করতে একটি মহল তাদের তাদের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দিয়ে মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত সংবাদ প্রকাশ করে। প্রকাশিত ঐ সংবাদ সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে দাবী করা হয়।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *