আটঘরিয়ায় স্বামী পরিত্যক্ত নারী ৮মাসের অন্ত:সত্তা

রফিকুল ইসলাম সুইট : দীর্ঘ ৭/৮মাস ধরে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে ধর্ষণ করেন নাগদহ মধ্যপাড়া গ্রামের লম্পট আলম(৩৫)। ধর্ষণে ঐ নারী বর্তমানে ৮মাসের অন্তঃসত্বা। এঘটনায় আটঘরিয়া থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন অন্ত:সত্তা নারীর মা জয়গুন খাতুন। ধর্ষক আলম ওই নারীর পরিবারকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি ও গ্রাম ছাড়ার হুমকি দিচ্ছেন। অন্ত:সত্তা নারীর বাবার নাম ইউসুফ আলী। ঘটনাটি ঘটেছে আটঘরিয়া উপজেলা চাঁদভা ইউনিয়নের নাগদহ মধ্যপাড়া গ্রামে।

পরে এই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে বিয়ের চাপ দিলে আলম রাজী হয়নি। এ ঘটনায় কোনো উপায় না পেয়ে আটঘরিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই নারীর মা জয়গুন খাতুন। অভিযোগে প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়নি। ধর্ষক আলম পালাতক রয়েছেন।

অন্ত:সত্তা পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ওই নারীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন একই গ্রামের লম্পট আলম। পরে পরিবার থেকে আলমকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। কয়েক দিন আগে নারীকে পরীক্ষা করে দেখে যায় সে অন্ত:সত্তা।

এ বিষয়ে আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়েছি। আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। আশার করি তাকে দ্রুত সময়ের মধ্যে ধরতে সক্ষম হব।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *