আটঘরিয়া ও সাঁথিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদক (আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া) : পাবনার আটঘরিয়া ও সাঁিথয়ায় পৃথক অগ্নিকান্ডে বসতঘর পুরে গেছে। এতে কয়েক লক্ষ্য টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

আমাদের আটঘরিয়া নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, আটঘরিয়া উপজেলার দেবোত্তর ইউনিয়নের অভিরামপুর গ্রামের বুধবার ভোররাতে বিদ্যুতের সর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে আলতাফ হোসেন, গোলাম রব, গোলাম মওলা ও মনির হোসেনর বসতঘর আগুনে ভষ্মিভূত হয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্থরা জানায়, বসতঘরে থাকা, ধান, চাউল, আসবাবপত্র আগুনে পুড়ে গেছে। এতে কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

দুপুরে আটঘরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মো: তানভীর ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোচা: ফুয়ারা খাতুন ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে ক্ষতিগ্রস্থ্যদের সহায়তার আশ্বাস দেন।
এদিকে আমাদের সাঁথিয়া থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক মনসুর আলম খোকন জানান, পাবনার সাঁথিয়ায় মশার কয়েল থেকে অগ্নিপাতের সূত্রপাত হয়ে আগুনে ১৩ টি ছাগলসহ ২ টি ষাঁড়, ২ টি দোচালা টিনের ঘর ভস্মীভূত হয়ে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে পৌর সদরের সাঁথিয়া কোনাবাড়িয়া গ্রামের হাবিবুর রহমান ও জাইদুলের বাড়িতে এ অগ্নিকান্ড ঘটে।

জানা যায়,মঙ্গলবার (২ মার্চ ) রাত ৮ টার দিকে কোনাবাড়িয়া গ্রামের জাইদুলের ও হাবিবুরের গোয়াল ঘরে মশার কয়েল থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ সময় স্থানীয় জনগণের সহযোগিতায় প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে প্রাণপণ চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও ঘরটি সম্পূর্ণরুপে ভস্মীভূত হয়।সাঁথিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি দেরিতে এসে পৌঁছলে ততক্ষণে সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে ঘরে থাকা ১৩টি ছাগল, ২ টি ষাঁড়সহ দোচালা ২ টি টিনের ঘর সব মিলিয়ে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়।আঃ মজিদ জানান, জাইদুলের ২ টি ষাঁড় ও হাবিবুরের ১৩ টি ছাগল আগুনে পুড়ে যাওয়ায় তারা দিশেহারা হয়ে পড়েছে।সাঁথিয়া ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার কেএম আবু হেনা রনি বলেন, খবর পেয়ে আমরা পৌঁছে দেখি এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটতে পারে। আগুন লাগার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে সাঁথিয়া পৌরসভার মেয়র মাহবুবুল আলম বাচ্চু ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *