ইউক্রেন নয়, ন্যাটোর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে রাশিয়া: মস্কো

বিদেশ : ইউক্রেনের বিরুদ্ধে নয়, মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে রাশিয়া; এমনটাই বলছে মস্কো। গত বৃহস্পতিবার মস্কোয় তরুণ রাজনীতিকদের এক সমাবেশে এ কথা বলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের ডেপুটি চিফ অব স্টাফ সের্গেই কিরিয়েঙ্কো। তিনি বলেন, ন্যাটোর পক্ষ নিতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি তার দেশের জনগণকে বিক্রি করে দিয়েছেন। খবর নিউজউইক। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। এই যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো সরাসরি হস্তক্ষেপ না করলেও কিয়েভকে সমরাস্ত্র ও জ¦ালানি সরবরাহসহ সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। এ ছাড়া রাশিয়াকে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিকভাবে কোণঠাসা করতে একের পর এক নিষেধাজ্ঞাও দিয়ে চলেছে। ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযান গতকাল শুক্রবার ১৭০তম দিনে গড়িয়েছে। মস্কো বারবার বলে আসছে, ইউক্রেনের প্রতি পশ্চিমা দেশগুলোর সহযোগিতার কারণে এ যুদ্ধ দীর্ঘায়িত হচ্ছে। রাশিয়া পশ্চিমাদের সরবরাহ করা সমরাস্ত্রের ভা-ারে হামলা চালানোকে তার ন্যায়সংগত বলেও ঘোষণা করেছে। এদিকে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন বলেছেন, ওয়াশিংটন কিয়েভের প্রয়োজন অনুযায়ী ইউক্রেনকে সমরাস্ত্র সরবরাহ করে যাবে। কিন্তু ন্যাটো দেশটিতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে কোনোরকম ঝামেলায় জড়াবে না। এ সম্পর্কে রুশ প্রেসিডেন্টের ডেপুটি প্রধান কিরিয়েঙ্কো আরও বলেন, ইউক্রেনে যত দিন পশ্চিমাদের স্বার্থ থাকবে তত দিন তারা দেশটির জনগণকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিতে থাকবে। তিনি আরও বলেন, ন্যাটো জোট ইউক্রেনের জনগণকে দিয়েই রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে যাচ্ছে। ইউক্রেনের শেষ নাগরিকটি বেঁচে থাকা পর্যন্ত এই যুদ্ধ চালিয়ে নেবে ন্যাটো। চলমান যুদ্ধে পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে ইউক্রেনকে সবচেয়ে বেশি আর্থিক ও সামরিক সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। চলতি সপ্তাহ পর্যন্ত কিয়েভকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনের দেয়া আর্থিক সহায়তার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮৮০ কোটি ডলারে। চলতি সপ্তাহেই ইউক্রেনকে আরও প্রায় ৯ কোটি ডলার সহায়তা দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর পুঁতে রাখা স্থলমাইন অপসারণে এই অর্থ ব্যয় হবে। এ ছাড়া কয়েকদিন আগেই ওয়াশিংটন জানায়, ইউক্রেনের জন্য তারা নতুন করে আরও ১০০ কোটি ডলারের নিরাপত্তা প্যাকেজের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এই প্যাকেজের আওতায় ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র এবং মেডিকেল সুবিধাসংবলিত সাঁজোয়া যান সরবরাহ করা হবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!