ঈশ্বরদীতে ধানের শীষের প্রার্থী হাবিবের গণসংযোগ

সেলিম আহমেদ, ঈশ্বরদী থেকে : ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব নির্বাচনী গণসংযোগ ও পথসভা শুরু করেছেন। আজ শুক্রবার তার নিজ গ্রাম সাহাপুর থেকে প্রচারণা শুরু করেন। এসময় তিনি এলাকার সাধারণ মানুষের কাছে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ধানের শীষ প্রতীকে ভোট চান।

নির্বাচনী গণসংযোগের সময় সঙ্গে ছিলেন, এ্যাবের মহাসচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার সাবেক সাংসদ আব্দুল বারী সরদার, উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি জিয়াউল ইসলাম সন্টু সরদার, সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন বিশ্বাস, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি একে এম আক্তারুজ্জামান আক্তার, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রকি, ঈশ্বরদী সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নয়ন প্রমুখ।

বিএনপি নেতা হাবিব বলেন, গত ২০ বছরে ঈশ্বরদী শহরে একজন এমপি বর্তমানে ভূমিমন্ত্রী কোনো কিছুই দিতে পারেনি। ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার মানুষ তাদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। জনগন সুষ্ঠ ভাবে নিজের ভোট দিতে পারলে বিএনপি ক্ষমতায় আসবে। ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার আসনটি মূলতঃ বিএনপির। দির্ঘ দিন এ আসনটি আমাদের নিয়ন্ত্রণে ছিলনা। দির্ঘ সময় ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার মানুষ নির্যাতনের মধ্যে বসবাস করতে ছিল। এবার জনগণ সৌচ্চার হয়ে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও ভোট কারচুপির জবাব দিয়ে ধানের শীষে ভোট দিবে। ক্ষমতাশীন দলের ক্যাডার বাহিনী আমাদের নেতা-কর্মীদের হুমকী-ধামকী দিচ্ছে, নির্বাচনী প্রচারণায় বাঁধা সৃষ্টি করছে। শহরে ধানের শীষের পোষ্টার লাগাতে দিচ্ছেনা, লাগালে তা ছিড়ে সেখানে নৌকার পোষ্টার লাগানো হচ্ছে। ধানের শীষের নির্বাচনী প্রচারণায় যতই বাঁধা দিবে ভোটের সংখ্যা ততই বেড়ে যাবে।

তিনি বলেন, খুন, হত্যা, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, জমি দখল, বালু মহল দখল থেকে সাধারন মানুষ পরিত্রাণ পেতে এবং নিশ্চিন্তে বসবাস করতে এবার ধানের শীষে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে। ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার এই আসনে ধানের র্শীষের বিজয় নিশ্চিত। ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার জনগন সুষ্ঠ ভাবে নিজের ভোট দিতে পারলে ধানের শীষের প্রার্থী বিজয়ী হবে। ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার বিএনপির সকল স্তরের নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে সম্মানীত ভোটারদের কাছে গিয়ে তাদের মূল্যবান ভোট ও রায় নিয়ে আসনটি পূণঃরুদ্ধার করে বেগম খালেদা জিয়াকে উপহার হিসেবে দেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *