এবার শুটিং’র পালা

বিনোদন: গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে হুট করেই ২০ বছর পর ঢাকায় ফিরে চমকে দিয়েছিলেন কলকাতা প্রবাসী অঞ্জু ঘোষ। প্রায় একইভাবে আবারও দেশে ফিরছেন চলচ্চিত্র ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যবসাসফল এই নায়িকা।
গতবার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আমন্ত্রণে বেড়াতে এলেও এবার আসছেন সরাসরি সিনেমার শুটিংয়ের জন্য। ঢালিউড চলচ্চিত্রে আবারও অভিনয় করতে যাচ্ছেন এই অভিনেত্রী।
তিনি অংশ নেবেন জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘মধুর ক্যান্টিন’-এ। বিষয়টিনিশ্চিত করেছেন ছবির নির্মাতা সাঈদুর রহমান সাঈদ।
পরিচালক বলেন, ‘২১ জানুয়ারি তিনি ঢাকায় আসছেন। ২২ তারিখ থেকে শুটিংয়ে অংশ নেবেন। এর ফলে দীর্ঘ প্রায় ২২ বছর পর আবারও বাংলাদেশের ছবিতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন অঞ্জু ঘোষ। তাকে পেয়ে আমরা আনন্দিত।’
‘মধুর ক্যান্টিন’ সিনেমায় মধুদার চরিত্রে অভিনয় করছেন ওমর সানী। আর সাংবাদিকের ভূমিকায় দেখা যাবে মৌসুমীকে।
সিনেমায় মধুদার জীবনের ১৯৬৪ থেকে ১৯৭১-এর সময়টাই উঠে আসবে।
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার আগে অঞ্জু ঘোষ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভোলানাথ অপেরার হয়ে যাত্রায় নৃত্য পরিবেশন করতেন ও গান গাইতেন। ১৯৮২ সালে এফ কবীর চৌধুরী পরিচালিত ‘সওদাগর’-এর মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এই ছবিটি ব্যবসায়িকভাবে সফল ছিল। রাতারাতি তারকা বনে যান তিনি। অঞ্জু বাণিজ্যিক ছবির তারকা হিসেবে যতটা সফল ছিলেন, সামাজিক ছবিতে ততটাই ব্যর্থ হন।
১৯৮৭ সালে অঞ্জু সর্বাধিক ১৪টি সিনেমায় অভিনয় করেন, মন্দা বাজারে যেগুলো ছিল সফল ছবি। ১৯৮৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ অবিশ্বাস্য ব্যবসা করে। সৃষ্টি করে নতুন রেকর্ড।
তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে, সওদাগর, নরম গরম, আবে হায়াত, রাজ সিংহাসন, পদ্মাবতী, রাই বিনোদিনী, সোনাই বন্ধু, বড় ভালো লোক ছিল, আয়না বিবির পালা, আশা নিরাশা, নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা, মালাবদল, আশীর্বাদ প্রভৃতি।
১৯৯১ সালে বাংলা চলচ্চিত্রে নতুনদের আগমনে তিনি ব্যর্থ হতে থাকেন। এর কয়েক বছরের মাথায় তিনি দেশ ছেড়ে চলে যান ভারতে এবং কলকাতার চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে থাকেন। সর্বশেষ তিনি ভারতের বিশ্বভারতী অপেরার যাত্রাপালায় নিয়মিত অভিনয় করতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *