কিয়েভে রুশ হামলায় মার্কিন সাংবাদিক নিহত

বিদেশ : ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের কাছাকাছি এলাকা ইরপিনে দায়িত্ব পালনের সময় রুশ হামলায় মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের একজন সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। ওই অঞ্চলের পুলিশ প্রধান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বলে বিবিসিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।এঘটনায় আহত হয়েছেন আরো দুই জন। তাদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

পুরস্কারজয়ী ওই সাংবাদিকের নাম ব্রেন্ট রেনাড। তিনি ২০১৫ সালে নিউ ইয়র্ক টাইমসে কর্মরত ছিলেন। ইরপিন শহরের কাছে একটি গাড়ি লক্ষ্য করে রুশ বাহিনী গুলিবর্ষণ করলে এতে গুলিবিদ্ধ হন এই সাংবাদিক। কিয়েভের পুলিশ প্রধান অ্যান্দ্রিউ নেবিতভ দাবি করেন, রেনাডকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছেন রুশ সেনারা।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরু পর এই প্রথম কোনো বিদেশি সাংবাদিক নিহত হলেন। হামলার বর্ণনা দিতে গিয়ে আহত অপর এক সাংবাদিক হুয়ান আরেদোন্দো বলেন, ” আমরা মূলত ইরপিনে শরণার্থীদের ফুটেজ নিতে গিয়েছিলাম। গাড়িতে ছিলাম।

সেসময় আমাদের একটি সেতুতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে। চেকপয়েন্ট পার হওয়ার পরই তারা গুলি ছুড়তে থাকে। আমার সঙ্গে ছিলেন ব্রেন্ট রেনাউড। তার ঘাড়ে গুলি লাগে। সে রাস্তায় পড়ে যায়।” এঘটনায় এক বিবৃতিতে রেনাডের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে নিউইয়র্ক টাইমস। নিউইয়র্ক টাইমসের একজন মুখপাত্র বলেছেন, ‘ব্রেন্টের মৃত্যুর খবরে আমরা গভীরভাবে দুঃখভারাক্রান্ত।

ব্রেন্ট একজন চলচ্চিত্র নির্মাতা ছিলেন, যিনি কয়েক বছর ধরে নিউইয়র্ক টাইমস-এ অবদান রেখেছেন।’ এদিকে সাংবাদিক হত্যার ঘটনায় রাশিয়াকে উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *