খালেদা জিয়াকে নিয়ে আর ছিনিমিনি খেলবেন না: রিজভী

ডেস্ক রির্পোট: খালেদা জিয়াকে নিয়ে আর ছিনিমিনি না খেলার আহবান জানিয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, খালেদা জিয়ার জামিনে বাধা সৃষ্টি করবেন না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, আইন-আদালত কবজায় নিয়ে সাজানো মিথ্যা মামলা দিয়ে একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে নাজেহাল করা হচ্ছে। জনগণ তা আর বেশি দিন মেনে নেবে না। আমরা পরিষ্কার বলতে চাই, জনগণ কাউকেই ক্ষমা করবে না। অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেন। তাকে তার পছন্দ অনুযায়ী বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার সুযোগ দেন।

সোমবার বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী বলেন, কিছুদিন আগে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে লোকদেখানো অভিযানে চুনোপুঁটিদের ধরার পর গণমাধ্যমে যে-ই রাঘব-বোয়ালদের নাম বের হয়ে আসতে লাগলো, তখনই অভিযান বন্ধ করে দেওয়া হলো। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রেসনোট দিয়ে গণমাধ্যমে দুর্নীতির খবর প্রকাশে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হলো। অথচ প্রধানমন্ত্রী এখনো অভিযান নিয়ে মিথ্যা বলেই যাচ্ছেন। গত রোববারও বিদেশে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দুর্নীতিবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে। তাহলে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির সঙ্গে জড়িতদের, ব্যাংক থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাটকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে না কেন? তিনি বলেন, যদি সত্যিকার দুর্নীতিবিরোধী অভিযান করতে হয়, তাহলে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের ঘর থেকেই শুরু করতে হবে। সেই সৎ-সাহস প্রধানমন্ত্রী রাখেন না। ভোগ-লালসায় অস্থির থাকায় যারা মানবিক বিবেচনাগুলো পদদলিত করছে, তারা কখনোই ন্যায়সঙ্গত কাজ করতে পারে না।

রিজভী বলেন, ২০০৪ সালের ৭ জুন সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত কমিটির প্রধান হিসাবে বিএনপি সরকারের অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমান সুস্পষ্ট ভাষায় বলেছিলেন, তারা আমাদেরকে টাকা দেয়নি, কম্পিউটারও দেয়নি। তবে আমরা কেন তাদের দেশের আদালতের রায় অনুযায়ী তাদেরকে ক্ষতিপূরণের টাকা দেব? টিউলিপের সঙ্গে চুক্তি বাতিল নিয়ে সমালোচনার জবাবে রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিফোন শিল্প সংস্থার দোয়েলকম্পিউটার নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বিএনপি নেতা।

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগের প্রকল্প মানেই দুর্নীতির মহাধুমধাম। আপনাদের মনে আছে তারা (সরকার) ২০১২ সালে একবার দোয়েল কম্পিউটার নামে একটি প্রকল্প উদ্বোধন করেছিল। সেই দোয়েল কোথায় উড়ে গেছে, তা জনগণ কিছুই জানে না। এসময় ‘আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস’ উপলক্ষে বিএনপির উদ্যোগে আগামী ১০ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় ঢাকায় এবং দেশব্যাপী বিভাগীয় সদরে র‌্যালি করার ঘোষণা দেন দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *