চাটমোহরে আলিম পরীক্ষার খাতা কেন্দ্র সচিবের বাড়িতে

চাটমোহর, পাবনা : পাবনার চাটমোহরে আগামি পহেলা এপ্রিল থেকে অনুষ্ঠিতব্য আলিম পরীক্ষার খাতাসহ অন্যান্য সরঞ্জাম কেন্দ্রে না রেখে চাটমোহর এনায়েতুল্লাহ সিনিয়র মাদ্রাসার কেন্দ্র সচিব অধ্যক্ষ মওলানা মোঃ আঃ রউফ নিজ বাড়িতে নিয়ে রাখেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয় সাংবাদিকরা বিষয়টি জানার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে ইউএনও গতকাল সোমবার কেন্দ্র সচিবের ভাড়া বাড়ি থেকে পরীক্ষার মূল খাতা,অতিরিক্ত খাতা,ব্যবহারিক খাতা,করোগেটেড বোর্ড,পরীক্ষার সময়সূচী উদ্ধার করেন। একই সাথে পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিবের দায়িত্ব থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়ার পাশাপাশি প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে,চাটমোহর এনায়েতুল্লাহ সিনিয়র মাদ্রাসা আলিম পরীক্ষার কেন্দ্র। এই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ পদ শুন্য থাকায় বিধি মোতাবেক উপজেলার হান্ডিয়াল ইউনিয়নের পাকপাড়া সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মওলানা মোঃ আঃ রউফকে কেন্দ্র সচিব নিয়োগ করা হয়।

গত ২১ মার্চ কেন্দ্রের তদরকি কর্মকর্তা উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের সহকারী ইনস্ট্রাক্টর কল্যাণ কুমার সরকার ও রামচন্দ্রপুর সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মওলানা মোঃ আঃ রাজ্জাক পরীক্ষার খাতাসহ অন্যান্য উপকরণ ৩টি বস্তায় জেলা থেকে নিয়ে এসে পরীক্ষা কেন্দে রাখেন। কিন্তু এনায়েতুল্লাহ মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মওলানা মোঃ আবু ইসাহকের সাথে মত পার্থক্যের কারণে ২৩ মার্চ কেন্দ্র সচিব পরীক্ষার খাতাসহ উপকরণ সমূহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে না জানিয়ে নিজ ভাড়া বাড়িতে নিয়ে যান।

বিষয়টি চাটমোহরের সংবাদকর্মীরা জানার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমারকে জানান। ইউএনও গতকাল সোমবার কেন্দ্রের তদারকি কর্মকর্তা কল্যাণ কুমার সরকারের মাধ্যমে কেন্দ্র সচিব অধ্যক্ষ মওলানা মোঃ আঃ রউফের ভাড়া বাড়ি থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

কল্যাণ সরকার জানান, তিনি পরীক্ষা কেন্দ্রে খাতা রেখে যান। কিন্তু কেন্দ্র সচিব তা বাড়ি নিয়ে যাবে,তা তিনি জানতেন না। কেন্দ্র সচিব আঃ রউফ বলেন,এটা আমার ভুল হয়েছে। আমাদের মধ্যে সামান্য বিরোধের কারণে আমি খাতা নিয়ে গেছি।”উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমার বলে,“বিষয়টি জানার পর পরই আমি তদারকি কর্মকর্তাকে দিয়ে ভাতা নিয়ে এসে পরীক্ষা কেন্দ্রে রেখেছি। একই সাথে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব থেকে অধ্যক্ষ মওলানা আঃ রউফকে অব্যাহতি দিয়ে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক পদক্ষেপের সুপারিশ করা হয়েছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *