চীনে আবারও করোনার ধাক্কা, ভয়াবহ পরিস্থিতির আশঙ্কা

বিদেশ : মহামারি করোনা ভাইরাসের শুরু হয়েছে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে। পরে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। অবশ্য সংক্রমণ ধীরে ধীরে কমে আসে। এদিকে আবার চীনে জেঁকে বসেছে করোনাভাইরাস মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের শঙ্কা। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ৫৭ জনের শরীরে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে।

এপ্রিলের পর থেকে সেখানে একদিনে এত বেশি রোগী আর কখনোই শনাক্ত হয়নি। গতকাল রোববার চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানিয়েছে, নতুন শনাক্ত রোগীদের মধ্যে ৩৬ জনই বেইজিংয়ে স্থানীয়ভাবে আক্রান্ত হয়েছেন। বাকি ২১ জন বিদেশফেরত। প্রায় দুই মাস পর কিছুদিন আগে হঠাৎ করেই বেইজিংয়ে করোনার প্রকোপ বাড়তে শুরু করেছে।

সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে ইতোমধ্যেই সেখানকার দু’টি প্রধান পাইকারি পণ্যের বাজার লকডাউন করে দেয়া হযেছে। অন্তত ১১টি এলাকার বাসিন্দাদের জন্য জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। বাজার দু’টির কাছে মোতায়েন করা হয়েছে শত শত পুলিশ সদস্য। নিকটবর্তী অন্তত নয়টি স্কুল ও কিন্ডারগার্টেন বন্ধের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে।

নিষিদ্ধ করা হযেছে সব ধরনের খেলাধুলা আয়োজন, সিনেমা হল ও জনসমাবেশ। গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে প্রথমবারের মতো শনাক্ত হয় নভেল করোনাভাইরাস। এরপর দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ে সারাবিশ্বে। তবে মাস চারেকের ভেতর এ মহামারি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে এনেছিল চীন। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৩ হাজার ১৩২ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৪ জন।

সেখানে আক্রান্তদের মধ্যে প্রায় সবাই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৮ লাখ ৭২ হাজার ১৯৮ জন। প্রাণ হারিয়েছেন ৪ লাখ ৩২ হাজারেরও বেশি মানুষ। আর আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪০ লাখ ৪৩ হাজার ৩৯৩ জন।

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা করোনায় আক্রান্ত

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *