চীনে টানা ৮ দিন করোনায় নতুন কোনো মৃত্যু নেই

বিদেশ : অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে এবারের মতো প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের থাবা থেকে ভালোভাবেই বেরিয়ে যেতে পেরেছে চীন। গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশ থেকেই এ ভাইরাসের সূত্রপাত। আর তার জেরে আচমকাই এক মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত হয় দেশটি। করোনায় প্রাণ যায় হাজার হাজার মানুষের। কিন্তু, অত্যন্ত কঠোরতার সঙ্গে সে পরিস্থিতি মোকাবিলা করে চীন। ক্রমে ক্রমে বোতলবন্দি করে বাগে আনে করোনাকে।

আর তারই পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমানে দেশটিতে করোনার সংক্রমণ বলতে গেলে শূন্যে নেমে এসেছে। সবচেয়ে বড় সুখবর হলো, বিগত টানা ৮ দিন দেশটিতে করোনায় নতুন করে আর কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানায়। শুধু মৃত্যু নয়, বর্তমানে চীনে নতুন করে করোনা শনাক্তের সংখ্যাও প্রায় শূন্যের কোঠায়।চীনের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে আরেক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানাচ্ছে, বুধবার দেশটিতে নতুন করে মাত্র ১০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এমনকি সম্প্রতি বাইরে থেকে দেশটিতে যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যেও নতুন করে করোনা শনাক্তের সংখ্যা কমেছে। জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানায়, বুধবার চীনের মূল ভূ-খ-ে ১০ জন নতুন করোনা রোগী মিলেছে। আগের দিন এ সংখ্যা ছিল ৩০। আগের দিন শনাক্ত ৩০ জনের মধ্যে ২৩ জনই ছিলেন সদ্য দেশের বাইরে থেকে ফেরা।

মহামারির সূত্রপাত হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত সরকারি হিসেবে চীনে ৮২ হাজার ৭৯৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩২ জনের। সেরে উঠেছেন ৭৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। বর্তমানে আর মাত্র ৯৫৯ জন নিশ্চিত করোনা রোগী আসে দেশটিতে।

এর মধ্যে গুরুতর অবস্থা ৬৩ জনের। চীন থেকে আপাত গুটিয়ে নিলেও বর্তমানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আর ইউরোপের দেশগুলোতে মরণ ছোবল হানছে করোনা। এ ছাড়া এশিয়ার আরেক দেশ ইরানও করোনার ধাক্কা অনেকটাই সামলে উঠেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য মতে, এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ২৬ লাখ ৩৯ হাজারের বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছেন ১ লাখ ৪৪ হাজারেরও বেশি মানুষ। সেরে উঠেছেন ৭ লাখ ২২ হাজারের কিছু বেশি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *