জীবিকা নয়, জীবনের জন্যই শিক্ষা প্রয়োজন: কাদের

এফএনএস: ‘জীবিকা নয়, জীবনের জন্যই শিক্ষা প্রয়োজন’ এই বাস্তবতা শিক্ষার্থীদেরকে উপলব্ধি করার আহ্বান করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপি পূর্ণিমার রাতে অমাবস্যার আঁধার দেখেন, গভীর হতাশার মাঝে মধ্যে হাঁক ছাড়েন। গতকাল শনিবার ময়মনসিংহের ত্রিশালে শোক দিবস উপলক্ষে কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু : বাঙালির চেতনার বাতিঘর’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা সভায় যুক্ত হন। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিভেদের দেয়াল ভেঙে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যরে সেতুবন্ধনই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে সোনালী অর্জনের নবদিগন্তে। বিএনপির দৃষ্টিশক্তিতে নেতিবাচক রাজনীতির ঘন কুয়াশা জমেছে বলেই সরকারের সাহসী ও ভালো উদ্যোগ দেখতে পান না। তারা পূর্ণিমার রাতে অমাবস্যার আঁধার দেখেন, গভীর হতাশার মাঝে মধ্যে হাঁক ছাড়েন।

তিনি বলেন, সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে পরিবেশ অনুকূলে এলেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ধৈর্য ধরার আহ্বান জানাই। ওবায়দুল কাদের বলেন, নারায়ণগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে নাকি নাশকতা হয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হবে। সেতুমন্ত্রী বলেন, মসজিদে এসি বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি দগ্ধদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা দেয়ার নির্দেশ ও সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন।

এ ঘটনায় হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে তাদের ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের। করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে তিনি বলেন, ইউরোপ, আমেরিকাসহ যে সকল দেশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিয়েছিল, আবারও তারা বাধ্য হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকারীদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে।

হত্যাকারীদের দেশে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চলছে। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু বাঙালির চেতনার বাতিঘর’ শীর্ষক আলোচনা সভায় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসনের সংসদ সদস্য হাফেজ মাওলানা রুহুল আমিন মাদানী, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন অর রশিদ, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক মো. জালাল উদ্দিন। আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্যপদ্ধতি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. সুব্রত কুমার দে, সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. মাহবুব হোসেন, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. সাহাবউদ্দিন, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জান্নাতুল ফেরদৌস প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *