টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আফগানদের চূড়ান্ত দলে নেই শাপুর

স্পোর্টস: দেশের হয়ে মাঠে নামা হয় না দেড় বছর পেরিয়ে গেছে। তবুও আরেকটি বৈশ্বিক মঞ্চে আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করার স্বপ্ন দেখছিলেন শাপুর জাদরান। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ভেঙে গেছে তার সেই স্বপ্ন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দলে অভিজ্ঞ এই পেসারকে রাখেনি আফগানরা। আইসিসির নিয়মে রোববার পর্যন্ত আগের দলে পরিবর্তন আনার সুযোগ আছে বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাওয়া দেশগুলোর। এ দিনই নিজেদের ১৫ জনের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। গত মাসের শুরুতে প্রথম দফায় ১৮ সদস্যের দল দিয়েছিল আফগানিস্তান। ২০২০ সালের মার্চে আফগানিস্তানের হয়ে সবশেষ খেলা শাপুর সেই দলে পেয়েছিলেন সুযোগ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গত আসরে খেলা ডানহাতি পেসারকে এবার বাদ দিয়েই চূড়ান্ত দল সাজিয়েছে এসিবি। দেশের হয়ে ৩৬ টি-টোয়েন্টিতে ৩৭ উইকেট আছে শাপুরের। শাপুরের সঙ্গে আগের দল থেকে বাদ পড়েছেন কাইস আহমেদও। শরাফউদ্দিন আশরাফ, দৌলত জাদরান মূল দলে না থাকলেও আছেন সফরসঙ্গী হিসেবে। রিজার্ভ থেকে মূল দলে জায়গা করে নিয়েছেন ফরিদ আহমাদ মালিক। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ১৬ ম্যাচ খেলে ২১ উইকেট নিয়েছেন বাঁহাতি এই পেসার, ওভারপ্রতি দিয়েছেন আটের একটু বেশি রান। অবশ্য আফগানিস্তানের বিশ্বকাপে অংশ নেওয়াই একসময় পড়েছিল শঙ্কার মুখে। তালেবানরা দেশটির শাসন ক্ষমতা দখল করার পর কেড়ে নেয় মেয়েদের ক্রিকেট খেলার অধিকার। এর কড়া সমালোচনা করে অস্ট্রেলিয়া। এই সিদ্ধান্তে পরিবর্তন না এলে নভেম্বরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট খেলবে না বলে তারা স্পষ্ট জানিয়ে দেয়। অস্ট্রেলিয়া টেস্ট অধিনায়ক টিম পেইন আরও বড় দাবি জানান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আফগানিস্তানকে বাদ দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি। তবে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্তা সংস্থার ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী জেফ অ্যালারডাইস জানালেন, আফগানদের বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে কোনো সংশয় নেই। “তারা (আফগানিস্তান) আইসিসির পূর্ণ সদস্য। দলটি এখন বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং সুপার টুয়েলভ পর্বে খেলবে। অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে, এটা স্বাভাবিকভাবেই এগিয়ে চলছে।” “যখন অগাস্ট মাসে আফগানিস্তানে শাসনের পরিবর্তন ঘটেছিল, তখন আমরা তাদের ক্রিকেট বোর্ড-এসিবি সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করেছি। আমাদের প্রাথমিক কাজ হলো সদস্য বোর্ডের মাধ্যমে সেই দেশে ক্রিকেটের উন্নয়নে সহায়তা করা।” টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে সরাসরি জায়গা করে নেওয়া আফগানিস্তান আছে দ্বিতীয় গ্রুপে।
আফগানিস্তান দল: মোহাম্মদ নবি (অধিনায়ক), রহমানউল্লাহ গুরবাজ (উইকেটরক্ষক), হজরতউল্লাহ জাজাই, উসমান গনি, মোহাম্মদ শাহজাদ, হাশমতউল্লাহ শহিদি, আসগর আফগান, গুলবদিন নাইব, নাজিবউল্লাহ জাদরান, করিম জানান, রশিদ খান, মুজিব উর রহমান, হামিদ হাসান, ফরিদ আহমাদ মালিক, নাভিন উল হক।
সফরসঙ্গী অতিরিক্ত: শরাফউদ্দিন আশরাফ, সামিউল্লাহ শিনওয়ারি, দৌলত জাদরান, ফজল হক ফারুকি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!