দুই ভাই হত্যায় ৪ জনের মৃত্যুদন্ড , ৭ জনের যাবজ্জীবন

ডেস্ক রিপোর্ট: কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় দুই ভাইকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে চারজনের মৃত্যুদ- ও সাতজনের যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন আদালত।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কুষ্টিয়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সি মো. মশিয়ার রহমান তিন আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন। মৃত্যুদ-প্রাপ্তরা হলেন- ভেড়ামারা উপজেলার গোলাপনগর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে কমল হোসেন মালিথা, একই উপজেলার ফকিরাবাদ গ্রামের কাবুল হোসেন মালিথার ছেলে কামরুল প্রামাণিক ও সুমন প্রামাণিক এবং নজরুল ইসলামের ছেলে নয়ন শেখ (পলাতক)। যাবজ্জীবন কারাদ-প্রাপ্তরা হলেন- ভেড়ামারা উপজেলার ফকিরাবাদ গ্রামের নজরুল শেখ, আবদুর রহিম, মাহফুজুর রহমান, হৃদয় আলী (পলাতক), জিয়ারুল ইসলাম, স¤্রাট আলী প্রামাণিক (পলাতক) ও আশরাফ মালিথা। আদালত সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদী জাকারুল ইসলামের ৭ম শ্রেণিতে পড়ুয়া ভাতিজিকে উত্ত্যক্ত করতো প্রতিবেশী মৃত আয়ুব আলীর ছেলে আরিফ।

এ ঘটনায় পুনরায় মেয়েটিকে উত্ত্যক্ত করতে নিষেধ করলে আরিফ ক্ষিপ্ত হয়। ঘটনার দিন ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল বাদীর বাবা মজিবর রহমান মাস্টার, চাচা মিজানুর রহমান ও মিনারুল সরদার স্থানীয় মসজিদে এশার নামাজ শেষে বাড়িতে ফিরছিলেন। এ সময় আসামিরা তাদের পথ আটকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে থাকেন। এতে ঘটনাস্থলেই মজিবর রহমান মাস্টারের মৃত্যু হয়।

এ সময় স্থানীয়রা নিহতের আরেক ভাই মিজানুর রহমানকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত মজিবর রহমানের ছেলে বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। কুষ্টিয়া আদালতের সরকারি কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, ভেড়ামারার চাঞ্চল্যকর দুই ভাই হত্যা মামলায় অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামিদের মৃত্যুদ- ও যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন আদালত।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!