ধোনির স্বাক্ষর পেয়ে দারুণ খুশি যাশাসবি

স্পোর্টস: ভারতীয় ক্রিকেটের অনেক সাফল্যের কারিগর মহেন্দ্র সিং ধোনি। সাদা বলের ক্রিকেটে তিনটি বিশ্ব আসরেই শিরোপা জয়ী ইতিহাসের একমাত্র অধিনায়ক তিনি। নিজের ব্যাটে এমন একজনের স্বাক্ষর পেয়ে তাই দারুণ খুশি যাশাসবি জয়সওয়াল। ভারতের ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ধোনি। ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপে তার হাত ধরে ২৮ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ট্রফি জেতে দেশটি। ২০১৩ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও তার অধিনায়কত্বে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত। সাফল্যম-িত ধোনির ক্যারিয়ার এখন গোধূলি লগ্নে, আর যাশাসবির কেবল শুরু। আইপিএলে গত কয়েকটি ম্যাচে ভালো শুরু পেয়েও ইনিংস বড় করতে পারছিলেন না তরুণ এই ব্যাটসম্যান। অবশেষে ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে শনিবার টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি তুলে নেন তিনি। চেন্নাইয়ের দেওয়া ১৯০ রানের লক্ষ্যে ঝড় তোলেন রাজস্থান রয়্যালসের এই ওপেনার। ১৯ বলে তুলে নেন ফিফটি। এরপর অবশ্য এগোতে পারেননি, ২১ বলে ৩ ছক্কা ও ৬ চারে ৫০ করে ফেরেন সাজঘরে। তবে দলকে রান তাড়ায় গড়ে দেন জয়ের ভিত। পরে শিবাম দুবের ৬৪ রানের অপরাজিত ইনিংসে ১৫ বল বাকি থাকতেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় রাজস্থান। ম্যাচ শেষে তার ব্যাটে কিংবদন্তিতুল্য ধোনিকে স্বাক্ষর করতে অনুরোধ করেন ১৯ বছর বয়সী যাশাসবি। আর তা পেয়ে আইপিএল ওয়েবসাইটকে জানান উচ্ছ্বাসের কথা। “ম্যাচ শেষে আমার ব্যাটে এমএস ধোনির স্বাক্ষর নিয়েছি। আমি সত্যিই অনেক খুশি।” বড় লক্ষ্য তাড়ায় কীভাবে মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত রেখেছিলেন, সেটা তুলে ধরেন যাশাসবি। “আমি প্রথমে কিছুক্ষণ উইকেট বোঝার কথা ভাবছিলাম। কিন্তু আমরা ১৯০ রান তাড়া করছিলাম, তাই জানতাম যে উইকেট ভালোই হবে। আলগা বল কাজে লাগাতে চেয়েছিলাম। দলকে ভালো শুরু এনে দিতে চেয়েছি, যাতে ১৯০ রান তাড়া করতে পারি আমরা।”

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *