নিহত স্কুল শিক্ষিকার স্বর্ণ উদ্ধার: আটক ৩ ডোম

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মিরপুর মহল্লার কালাচাঁন মোড়ে বাস ও ট্রাকের মাঝখানে চাপা পড়ে নিহত হয় বনবাড়ীয়া সরকরি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ইফরাত সুলতানা রুনী। দুর্ঘটনার সময় তার শরীরে থাকা স্বর্ণালঙ্কার চুরি হয়ে যায়। পরে পরিবারের স্বজনরা অভিযোগ করে থানায়। এঘটনায় তিন ডোমকে আটক করেছে পুলিশ।

অভিযোগ অনুযায়ী সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারী) সন্ধায় ডোমের কাছ থেকে স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আটককৃত ডোমরা হলেন, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের ডোম রানা (৩২), শাহ আলম (৩০) ও সুমন (৩৫)।

মামলার বাদী মোসফেকুস সালেহীন জানান, দুর্ঘটনার সময় আমার বোনের সঙ্গে স্বর্ণের একটি চেইন, দুইটি অ্যাংটি, দুইটি হাতের বালা, একজোড়া কানের দুল ও নাকফুল ছিল। মর্গে থেকে লাশ পাওয়ার পর তার শরীরে কোন স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া যায়নি।

সিরাজগঞ্জ সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, ৩জন ডোমকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদে নিহত শিক্ষিকার স্বর্ণলঙ্কার উদ্ধার করেছি। স্বর্ণলঙ্কার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ফরিদুল ইসলাম জানান, এবিষয়ে আমি অবগত নয়। যদি এই ধরনের ঘটনা ঘটে অবশ্যই ডোমের বিরুদ্ধে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারী) স্কুল শিক্ষিকা ইফরাত সুলতানা রুনীসহ ছেলে/মেয়েকে নিয়ে ব্যাটারিচালিত রিকশাযোগে শহরে যাচ্ছিলেন। কালাচাঁন মোড় এলাকায় পৌঁছালে এনায়েতপুর দরবার শরীফ থেকে সিরাজগঞ্জগামী জাহাঙ্গীর পরিবহনের একটি বাস সামনের একটি ট্রাককে ওভারটেক করতে গিয়ে রিকশাটিকে সজোরে চাঁপা দেয়। এতে রিকশাটি ট্রাকের পেছনে ধুমড়ে মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই স্কুল শিক্ষিকার রুনী তার ছেলে নিহত হয়। এসময় গুরুতর আহত হয় শিশু সোয়াবা রহমান ও রিকশাচালক চাঁন মিয়া। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসক শিশু সোয়াবা রহমানকে মৃত ঘোষণা করে।

এইচ এম আলমগীর কবির
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
০৮-০২-২০২১

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *