পাবনার ইছামতি নদী উদ্ধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে শুরু হলো পাবনার ইছামতি নদী উদ্ধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান। সোমবার সকাল দশটার পর পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে অভিযান শুরু করে জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড।

সারাদেশে সরকারের ছোট নদী, খাল, জলাশয় পুন:খনন প্রকল্পের আওতায় এ অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ড’র নির্বাহী প্রকৌশলী কে এম জহুরুল হক।
অভিযান চলাকালে এখন পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। সরকারের এ উদ্যোগকে সাধুববাদ জানিয়েছেন অনেকেই।

পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ জানান, উচ্ছেদ অভিযানের কাজে প্রাথমিক পর্যায়ে ৩০ লাক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এই বরাদ্দের মাধ্যমে নদীর তীরে যতগুলো অবৈধ স্থাপনা পাওয়া যাবে তার সবগুলোই উচ্ছেদ করার কথা জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। এটি অব্যাহত প্রক্রিয়া। তবে পুরো নদী উদ্ধার ও চলমান করতে প্রশাসনকে সময় দিতে হবে বলে জানান তিনি।

নদীর তীরে বসবাসরত বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, তারা ৭০-৮০ বছর ধরে বসবাস করে আসছেন, তাদের সকল কাগজপত্র রয়েছে। সেখানে তারা অবৈধ কিভাবে। নদী উদ্ধার তারাও চান। কিন্তু তাদের বসবাসের জন্য সরকারকে জায়গা দেয়ার আহবান জানান।

পাবনাবাসী দীর্ঘকাল ধরে ইছামতি সচলের দাবিতে মানববন্ধণ, স্মারকলিপি, কাফনের কাপড় পড়ে মানববন্ধণ, অনশন, গণস্বাক্ষর, লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করে আসছেন। দীর্ঘকাল পর ইছামতি সচলের সিদ্ধান্তে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এসময় জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী আতিয়ুর রহমান , পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম , সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন, পাউবো তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শহীদুল ইসলাম, পাউবো পাবনার নির্বাহী প্রকৌশলী কে এম জহুরুল ইসলামসহ প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *