পাবনার বাজারে নতুন পেঁয়াজ :বাজার মন্দা

নিজস্ব প্রতিবেদক : উত্তরাঞ্চলের মধ্যে পেঁয়াজ আবাদে খ্যাত পাবনার সুজানগরের হাট-বাজারে আগাম আবাদ করা (মূলকাটা) নতুন পেঁয়াজ উঠতে শুরু করেছে। তবে হাট-বাজারে নতুন উঠা ওই পেঁয়াজের বাজার মন্দা হওয়ায় কৃষকরা হতাশ হয়ে পড়েছেন।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এ বছর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ১৮‘শ হেক্টর জমিতে আগাম মূলকাটা পেঁয়াজ আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আবাদ হয়েছে ১৮‘শ ৫০হেক্টর জমিতে যা, লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫০হেক্টর বেশি। ইতোমধ্যে উপজেলার হাট-বাজারে ব্যাপকভাবে ওই পেঁয়াজ উঠতে শুরু করেছে।

উপজেলার তৈলকুন্ডু গ্রামের কৃষক আনোয়ার হোসেন জানান, সাধারণত ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে নতুন ওই পেঁয়াজ উঠানো শুরু হয়। কিন্তু এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় পেঁয়াজ দ্রুত বড় হয়েছে। ফলে নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই পেঁয়াজ উঠানোা শুরু হয়েছে।

তাছাড়া কৃষকরা মৌসুমী পেঁয়াজের লোকসান পোষানোর আশায় আগেভাগে জমি থেকে ওই পেঁয়াজ উঠাচ্ছেন। তবে হাট-বাজারে পেঁয়াজের বাজার মন্দা হওয়ায় কৃষকরা অত্যন্ত হতাশ।

উপজেলার বাড়ইপাড়া গ্রামের কৃষক আবদুর রাজ্জাক বলেন ১বিঘা জমিতে মূলকাটা পেঁয়াজ আবাদ করতে সার, বীজ ও শ্রমিকসহ উৎপাদন করা খরচ হয় ২৪/২৫ হাজার টাকা। আর প্রতি বিঘা জমিতে পেঁয়াজ উৎপাদন হয় গড়ে ৪০ থেকে ৪৫মণ। বর্তমানে হাট-বাজরে প্রতি মণ পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪‘শ থেকে ৫‘শ টাকা দরে। এতে ১বিঘা জমিতে উৎপাদিত পেঁয়াজের মোট মূল্য দাঁড়াচ্ছে ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা যা, উৎপাদন খরচের চেয়ে কম। ফলে পেঁয়াজের বর্তমান এ বাজারে কৃষকরা হতাশ হয়ে পড়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ময়নুল হক সরকার বলেন, এ বছর চাহিদার তুলনায় মূলকাটা পেঁয়াজ উৎপাদন হয়েছে বেশি। তাছাড়া নির্বাচনের বছর বেশিরভাগ কৃষি পণ্যের দাম কমে যায়। সেকারণে হাট-বাজারে পেঁয়াজের দাম বেশ কমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *