পাবনার বাজারে রোপা-অামন ধানের দাম কম : হতাশ চাষিরা

বিশেষ প্রতিবেদক, পাবনা রিপোর্ট টোয়েন্টিফোর ডটকম: পাবনার বিভিন্ন মাঠে রোপা-আমন ধান কাটা শুরু হয়েছে। তবে পুরোদমে ধানকাটা শুরু হতে আরো এক সপ্তাহ পেরিয়ে যাবে। আগাম রোপণ করা এসব ধান হাটে উঠছে। পাবনার বিভিন্ন হাটগুলোতে নতুন রোপা-আমন ধান উঠলেও দাম কম হওয়ায় চাষিরা হতাশ হয়ে পড়েছে। মৌসুমের শুরুতেই জেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ধান বিক্রি হচ্ছে ৬শ থেকে সাড়ে ৬ টাকা মন দরে।

পাবনা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সূত্র জানায়, পাবনা জেলার ৯টি উপজেলায় এবার ৫২ হাজার ৯শ ৭৩ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষ হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কিছু জমির ধান কাটা-মাড়াই ও বিক্রি শুরু হয়েছে।

প্রতি হেক্টরে এবার রোপা আমনের ফলন হয়েছে গড়ে ৪ দশমিক ৯৭ মেট্রিক টন এবং বোনা আমন এবার চাষ হয়েছে ৩৯ হাজার ১শ ৩০ হেক্টর জমিতে। ফলন হয়েছে গড়ে ২ দশমিক ০২৫ মেট্রিক টন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র আরো জানায়, এখন পর্যন্ত রোপা আমন শতকরা ৪০ ভাগ জমিতে কাটা হয়েছে। আর বোনা আমন ধান কাটা হয়েছে ৫০ ভাগ।

পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন মাঠে মাঠে চলছে ধান কাটার মহোৎসব। উঠান জুড়ে চলছে ধান মাড়াই উৎসব।

উপজেলার বেরুয়ান গামের মানিক হোসেন এবার ৫ বিঘা জমিতে আমন ধান চাষ করেছেন। ৫ বিঘা জমির মধ্যে দুই বিঘা নিজের, ৩ বিঘা অন্যের কাছ থেকে পত্তন নেওয়া। বিনা-৭ জাতের ধান চাষ করেছেন। বিঘায় ফলন হচ্ছে গড়ে ১২ থেকে ১৪ মণ। কাটা-মাড়াই শেষে বাজারে তোলার পর প্রতিমণ ধান বিক্রি হচ্ছে গড়ে ৬শ টাকায়। এক বিঘা জমির ধান বিক্রি করে হাতে পেয়েছে ৮ হাজার ৪শ টাকা। কাটা-মাড়াইয়ের আড়াই হাজার টাকা খরচ বাদ দিয়ে হাতে থাকে ৫ হাজার ৯শ টাকা। পত্তনি জমিতে বিঘা প্রতি রোপা আমন চাষে খরচ হয়েছে গড়ে ১০ হাজার টাকা। পত্তনি জমিতে রোপা আমন চাষে লোকসান যাচ্ছে বিঘা প্রতি গড়ে ৪ হাজার ১শ টাকা। আর নিজের মালিকানা জমিতে লাভ হচ্ছে বিঘা প্রতি ৯শ টাকা।

টেবুনিয়া হাটে রোববার ধান বিক্রি করতে আসা মোকসেদ আলী বলেন, গত বছর ক্ষেত থেকে ধান কেটে মাড়াই করে হাটে তুলে এক মণ ধানের দাম পেয়েছি ৮শ ৫০ থেকে ৯শ টাকা। অথচ এবার সেই ধানের দাম গেড়ে ৬শ টাকা।

মিল মালিকরা জানান, প্রায় এক সপ্তাহ হাটে ধানের আমদানি হচ্ছে। প্রতি মণ বিনা-৭ জাতের ধান ৬শ থেকে ৬শ ৫০ টাকা মণ দরে কেনাবেচা হচ্ছে। গত বছর এই সময়ে বাজারে ধানের দাম ছিল গড়ে প্রতি মণ ৮শ টাকা।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *