পাবনার ভাড়ারা ও আতাইকুলার মধুপুরে দুইজনকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব পতিবেদক, পাবনা : পাবনা সদর উপজেলার ভাড়ারা এবং মধুপুরে পৃথক ঘটনায় দুইজনকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার (০৫ জুন) দিবাগত মধ্যরাতের পর এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, সদর উপজেলার ভাড়ারা খাঁ পাড়া গ্রামের কালু খাঁর ছেলে হুকুম আলী খাঁ (৬৫) ও আতাইকুলা থানার মধুপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে মজনু মিয়া (৪০)।

ভাড়ারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাইদ জানান, রাতে বাড়িতে গিয়ে হুকুম আলীকে ডাক দেন কয়েকজন অজ্ঞাত ব্যক্তি। এ সময় ঘর থেকে বাইরে বের হওয়া মাত্র গুলি করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান হুকুম আলী।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছিম আহম্মেদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। কারা কি কারণে তাকে হত্যা করেছে সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

তবে স্থানীয় একাধিক সুত্র জানায়, সম্প্রতি হুকুম আলীর নাতী রবিউল ইসলামকে মারধরের ঘটনায় গত ৪ জুন থানায় স্থানীয় ১৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন তিনি। সেই মামলার জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অপরদিকে, সদর উপজেলার আতাইকুলা থানার মধুপুর গ্রামে মজনু মিয়া (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। আতাইকুলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শরিফুল ইসলাম জানান, রাতে গ্রামের একটি চায়ের দোকানে তাস খেলে বাড়ি ফিরছিলেন মজনু। পথিমধ্যে পেছন থেকে দুর্বৃত্তরা তাকে ঘাড়ে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন মজনু মিয়া।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। কারা, কি কারণে তাকে হত্যা করেছে তা জানা যায়নি। তদন্ত চলছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *