পাবনাসহ উত্তরাঞ্চলে আগেভাগেই নেমেছে পৌষের শীত

খাইরুল ইসলাম বাসিদ : গত বছরের এই সময়ের তুলনায় এবার উত্তরাঞ্চলে শীতের তীব্রতা বেশি। অগ্রহায়ণের মাঝামাঝি থেকেই কুয়াশাচ্ছন্ন থাকছে সারা রাত। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এবার ডিসেম্বরের শুরুতে ঠান্ডা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উত্তরের জেলা পাবনায় শীত পড়তে শুরু করেছে। দিনে বেশী শীত অনুভূত না হলেও সন্ধার থেকে সকাল পর্যন্ত শীতে এখনই কাবু হয়ে উঠেছে জনজীবনে।
জেলায় সবচেয়ে বেশী শীত অনুভূত হচ্ছে গ্রামাঞ্চলসহ পদ্মার তীরবর্তী এলাকার গুলোতে। দূর্ভোগে পড়েছেন শিশু-বৃদ্ধসহ দরিদ্র ছিন্নমুল মানুষগুলো।
আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে বয়ষ্ক ও শিশুদের মাঝে দেখা দিয়েছে শীত জনীত রোগের প্রাদুর্ভাব। জেলার বিভিন্ন হাসাপাতালে প্রতিদিনই ভীর করছে শিশু, বৃদ্ধ থেকে বিভিন্ন বয়সী মানুষ।

বলা হয়, দেশে শীতের প্রবেশ ঘটে উত্তরের জেলা পঞ্চগড় দিয়ে। হিমালয় পর্বত মালার কাছে হওয়ায় অন্য এলাকার চেয়ে এখানে ঠাণ্ডার অনুভুতি একটু বেশিই।

অন্য বছরের এ সময়ে শীত একটু কম থাকলেও এবার আগেভাগেই নেমেছে পৌষের শীত। পঞ্চগড়ে ঠাণ্ডা থেকে বাঁচতে আগুন পোহাতে দেখা গেছে অনেককে।

রংপুরেও একই অবস্থা। দিনে ভ্যাপসা গরম থাকলেও সন্ধ্যা হতেই অনুভুত হচ্ছে বেশ ঠান্ডা। আবহওয়াবিদরা জানান, এবার বৃষ্টি কম হওয়ায় ডিসেম্বরের শুরু থেকেই শীতের মাত্রা বাড়তে পারে।

সিরাজগঞ্জ ও নাটোরে শীতের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যা থেকে রাত ভর থাকছে কুয়াশা। সকাল ৮/৯টার আগে ঠিক মতো সূর্যের দেখা মিলছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *