পাবনায় করোনা ভাইরাস (কোভিট-১৯) সংক্রান্ত জরুরী আলোচনা সভা

মিজান তানজিল, পাবনা: পাবনায় হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির করোনা ভাইরাস ( কোভিট-১৯) সংক্রান্ত জরুরী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার দুপুরে পাবনা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য দেন জেলা হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও সদর আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স।

বক্তব্য কালে এমপি প্রিন্স বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলা সরকারের পক্ষথেকে বিভিন্ন প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এতে আতঙ্কিত না হয়ে সবাই সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। সভায় করোনা ভাইরাস সক্রান্ত বিষয়াদি নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন জেলা প্রশাসক কবীর মাহুমদ,পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা: মেহেদী ইকবাল, হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা: মো: আবুল হোসেন,পাবনা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ সহ হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সকল সদস্য বৃন্দরা।

সভায় সর্বস্থরের মানুষের সচেতনতার উদ্দেশ্যে বলা হয়, নিজের দুই হাত মাঝে মধ্যেই পরিষ্কার, স্বচ্ছ পানি দিয়ে ধোয়া। এরপর হাতে সাবান লাগিয়ে হাতের তালু এবং পৃষ্ঠতল ঘষে ফেনা তুলুন। আঙ্গুলগুলোর মাঝেও একইভাবে পরিষ্কার করা। এরপর আবারও পানি দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলার কথা বলা হয়। তাছাড়া হাঁচি বা কাশি দেওয়ার সময় টিস্যু দিয়ে মুখ ঢাকতে হবে। এরপর সেই টিস্যু ডাস্টবিনে ফেলে আবারও নিজের হাত পরিষ্কার করতে হবে। হাঁচি বা কাশি আটকাতে কখনোই নিজের হাত বা কনুই ব্যবহার করবেন না।

এছাড়া করোনা ভাইরাসের তরল উৎস হাঁচি-কাশির ফোটা থেকে ফেস মাস্ক ব্যবহার করা। তবে এর মাধ্যমে ভাইরাসের অতি সূক্ষ্মকণা আটকানো সম্ভব নয়। মাস্ক পড়লেও চোখ খোলাই থাকে। ইতোমধ্যেই বেশ কিছু ব্যক্তির দেহে চোখের মাধ্যমে ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাই সবাইকে নিজের প্রতিযত্নবান  হতে হবে। পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। সভায় বলা হয়, যারা বিদেশ থেকে দেশে ফিরছে তারা অবশ্য ১৪দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *