পাবনায় গাজনার বিল থেকে ১৯ ঘন্টা পর নিখোঁজ ছাত্রের মৃতদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাঁথিয়া : পাবনার সুজানগরের গাজনার বিলে পরিবারের সদস্যদের সাথে বেড়াতে গিয়ে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ইচ্ছুক মেধাবী ছাত্র ফয়সাল তামিম(১৭) নিখোঁজের ১৯ ঘন্টা পর লাশ উদ্ধার করেছে পাবনা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকার সময় ডুবুরী দল লাশ উদ্ধরের চেষ্ট শুরু করে। দুপুর ১২ ঘটিকার সময় গাজনার বিলের সৈয়দপুর বিলের ক্যানাল থেকে তামিমের লাশ উদ্ধার করতে স্বক্ষম হয় ডুবুরী দল। বুধবার দুপুরে পরিবারের সদস্যেদের সাথে ফয়সাল তামিম গাজনার বিলে নৌকা ভ্রমণে যায়। বিকাল ৩টার দিকে হাটখালি এলাকায় বিলের মধ্যে দিয়ে সরবরাহকৃত বিদ্যুতের তারের সাথে ধাক্কা লেগে তামিম পানিতে ডুবে যায়। নৌকায় থাকা পরিবারের সদস্যরা ও পরে অন্যরা পানিতে নিখোঁজ তামিমকে খোঁজা খুঁজি করেও উদ্ধার করতে পরে না।

দুলাই উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাইদুর রহমান সাইদ জানান, তামিম খুব মেধাবী ছাত্র ছিল। নিখোঁজের পর থেকেই বিভিন্ন ভাবে আমরা খোঁজ খবর রাখি। রাতেই আমি তামিমের বাড়িতে গিয়ে তার বাবা,ম’ির সাথে দেখা করি। তার অকাল মৃত্যুতে আমরা শোকাহত।

কামালপুর পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জ রেজাউল করিম জানান, আজ সকালে পাবনা থেকে ডুবুরী দল এসে নিখোঁজ স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে। লাশ দাফনের জন্য তার পরিবারের সদস্যদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই মেধাবী ও শান্ত প্রকৃতির তামিমের জন্য এলাকায় শোকের ছায়া পড়ে যায়। আত্বীয় স্বজনরা শোকে কাতর হয়ে পড়েছে। সকাল থেকেই দুলাই উচ্চ বিদ্যালয়ের তার প্রিয় শিক্ষক,সহপাঠীসহ আত্বীয় স্বজনরা তাািমমের বাড়িতে ভীড় করতে থাকে।

সে উপজেলার সোনাতলা গ্রামের তাহেজ প্রমানিক ও সোনাতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নুরজাহান খাতুনের ছেলে। ফয়সাল তামিম ছোট বেলা থেকেই ছিল মেধাবী। সে ৫ম শ্রেণির শিক্ষা সমাপণী ও ৮ম শ্রেণীর জেএসসি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি প্রাপ্ত হন।

তামিম এ বছর সুজানগর উপজেলার দুলাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রস্তুতি গ্রহণ করছিল।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *