পাবনায় পেটে জোড়া লাগানো যমজ শিশুর জন্ম

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : পাবনার সুজানগর উপজেলার সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের কাদুয়া গ্রামের ফিরোজ শেখের স্ত্রী সনিয়া খাতুন রোববার পাবনার বে-সরকারি যমুনা ক্লিনিক নামে একটি হাসপাতালে পেটে জোড়া লাগানো শিশুর জন্মদেন। পাবনা সদর হাসপাতাল রোডের উত্তর শালগাড়িয়া অবস্থিত যমুনা কিøনিকে এই পেটে জোড়া লাগোনো যমজ শিশুর জন্ম হয়েছে।
বে-সরকারি এই ক্লিনিকের চিকিৎসক ডাঃ ইসমতারা জানান, দুটি বাচ্চার পেট জোড়া লাগানো থাকার কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে,বাচ্চা দুটি সুস্থ তাকলেও মা চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে শিশু দুটিকে নিবির পর্যবেক্ষনে রাথা হয়েছে। এর আগেও এই ধরনের শিশুর জন্ম হয়েছে হাসপাতালে। এর বেশিরভাগ শিশু বেঁচে থাকে না। হাসপাতাল কতৃপক্ষে এবং চিকিৎসকরা শিশুটিকে সবধরনের চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন।
ফিরোজ শেখের ভাই আলমগীর হোসেন বলেন দরিদ্র পরিবারের লোক আমরা, আমার ভাই একজন দরিদ্র কৃষক। আমরা বাচ্চা দুটিকে নিয়ে খুবই দুশ্চিন্তায় মধ্যে আছি। সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকরা শিশুদুটিকে চিকিৎসা দিচ্ছেন। কি করবো ভেবে পাচ্ছিনা। এ ব্যাপারে সরকার ও সমাজের বৃত্তশীলদের সহযোগীতা কামনা করেছেন অসহায় পরিবার।
এ দিকে পেটে জোড়া লাগানো শিশু দুটিকে দেখার জন্য সাধারন মানুষ হাসপাতালের শিশু শিশু ওয়ার্ডে ভীড় করছেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *