পাবনায় ভারী বর্ষণের শহরে জলাবদ্ধতা : মানুষের চরম দুর্ভোগ

পিপ (পাবনা) : বর্ষার শুরুতেই পাবনায় রেকর্ড পরিমাণ ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। আবহাওয়া অফিস বলছে, গত চার বছরের মধ্যে পাবনায় এমন ভারী বৃষ্টি হয়নি। ভারী বৃষ্টিতে শহরের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা ঘাট ডুবে মানুষের বাড়িতে পানি ঢুকে পড়েছে। এতে দূর্ভোগে পড়েছেন জনসাধারণ। 
আবহাওয়া অফিস জানায়, শুক্রবার (১৮ জুন) সকাল ৯ টা থেকে শনিবার (১৯ জুন) দুপুর ৩ টা পর্যন্ত ১৯১ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়। আকাশ মেঘলা থাকার কারণে আরও দুই-তিনদিন বৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। শনিবার (১৯ জুন) পাবনার ঈশ্বরদী আবহাওয়া অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষক নাজমুল হাসান রঞ্জন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে টানা বৃষ্টিতে শহরের কালাচাঁদপাড়া, শালগাড়ীয়া, আটুয়া চামড়ার আড়ত মোড়, বেলতলা রোড, গোপালপুর, দিলালপুর, শালগাড়িয়া, কুঠিপাড়া, যুগীপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় ড্রেন ও রাস্তা উপচে মানুষের বাড়িতে পানি প্রবেশ করেছে। অনেক এলাকায় ড্রেনের নির্মাণ কাজ চলায় মুখ বন্ধ, ফলে পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।
শহরের দক্ষিণ আটুয়া এলাকার ইমন হোসেন বলেন, ড্রেন নির্মাণে ঠিকাদারদের ধীরগতির কাজ আর গাফিলতির কারণে আমাদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। ড্রেন দিয়ে পানি বের হবার বদলে ড্রেন থেকেই পানি ঘরে ঢুকে পড়ছে। তিনি দ্রুত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা গ্রহণে পৌর কর্তৃপক্ষের প্রতি দাবি জানান।
শহরের বেলতলা রোডের প্রবীন সাংবাদিক রণেশ মৈত্র বলেন, শুক্রবার রাত থেকে ঘুমাতে পারিনি। ঘরের মধ্যে বৃষ্টির পানি ঢুকেছে। পানি সেচে রাত কাটিয়েছি।
এদিকে, সকাল থেকেই জলাবদ্ধ এলাকা গুলো পরিদর্শন করেছেন পাবনা পৌর মেয়র শরীফ উদ্দিন প্রধান। তিনি বলেন, গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে অনেক এলাকায় পানি আটকে যাওয়ায় জনগন অনেক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। দীর্ঘদিনের এই সমস্যা একদিনে মেটানো সম্ভব না। তিনি আরও বলেন,এ বিষয়ে জনগনকেও সচেতন হতে হবে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা ব্যহত হয়, এমন কোনো কিছু ড্রেনে ফেলতেও অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!