পাবনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে গণপরিবহন ; ভাড়া বেশি নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : করোনা রিস্থিতির কারনে দীর্ঘ দুইমাস পরে সরকারের দেয়া নির্দেশনা মেনে পাবনা থেকে সকল রুটের বাস চলাচল শুরু হয়েছে ১ জুন থেকে। প্রথম দিকে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ থাকলেও বর্তমানে বেশ কম দেখা যাচ্ছে। পাবনা থেকে ১০ থেকে ১৫ জন যাত্রী ঢাকামুখী থাকলেও ঢাকা থেকে পাবনাতে যাত্রীর সংখ্যা নেই বল্লেই চলে। আর এই কারনে প্রতিটি যানবহন মালিকরা ভতুর্কি দিয়ে চালাতে গণপরিবহন এমটাই জানালেন শ্রমিকরা। শ্রমিকদের অভিযোগ শুধু ঢাকামুখী বাসের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য বিধির কথা বলা হচ্ছে কিন্তু অটো, সিএনজি, মাইক্রবাস গুলোতে মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্য বিধি নিয়ম। যাত্রী সংকটের এই রকম অবস্থা চলতে থাকলে বাস চলানো মালিকদের পক্ষে অসম্ভব বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ঠরা।

বৃহঃপ্রতিবার সকালে পাবনা বাইপাস বাস টারমিনাল এলাকায় স্বরজমিনে গিয়ে বর্তমান অবস্থা লক্ষ করলে দেখাযায়। পাবনা থেকে বিভিন্ন রুটের বাসেরযাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করছে। তবে ঢাকামুখী বাসগুলো নিয়ম অনুসরণ করলেও অভ্যন্তরিন রুটের পরিবহন গুলোর নেই কোন তেমন সুরক্ষা ব্যবস্থা। অপর দিকে চাকরি আর অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঢাকাতে যাচ্ছে না সাধারন মানুষ। বাস ভাড়া বাড়তি আর করোনা পরিস্থিতির অবনতী হওয়ার কারণে বেশ আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে সকলে। আবার সরকারের নির্ধারিত ভাড়ার চাইতে বেশি ভাড়া নেয়ার অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা। আবার অনেকেই স্বাস্থ্য বিধির এই ব্যবস্থাতে বেশ স্বাচ্ছন্দ বোধ করছেন বলে জানিয়েছেন।

পাবনা বাস টারমিনাল এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তা সার্জেন রতন আহম্মেদ জানালেন, পাবনা থেকে সকল রুটের বাসের সাথে সংশ্লিষ্ঠদের সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যারা মানছেন না তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হচ্ছে। সব সময় নজরদারিতে রাখা হয়েছে গণপরিবহন গুলোকে। কোন ধরনরে অভিযোগ পাওয়াগেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে এবং হবে বলে জানালে ট্রাফিক পুলিশ। পাবনা থেকে শুধু ঢাকা মুখি স্বাভাবিক সময়ে বাস চলাচল করতো প্রতিদিন একশোটি। বর্তমানে ৭০ থেকে ৮০টি বাস চলছে। আর অন্যান্য রুটের বাস স্বাভাবিকের চাইতে অনেক কম চলাচল করছে বলে জানাগেছে।

অপর দিকে জেলা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে সকাল থেকে যানবহন আর মানুষের পদচারনায় পুরো শহর জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়ে থাকছে প্রতিদিন। মুখে মাস্ক নেয়ার নির্দেশনা থাকলেও অনেকেই সেটি মানছেন না। গাদাগাদি করে শহরে কেনা কাটা করতে দেখা গেছে সাধান মানুষদের। আর এমন অবস্থা চলতে থাকলে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ ধারন করবে পাবনাতে।

বর্তমানে পাবনাতে করেনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। আর আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩ জন। বর্তমানে করোনা হাসপাতালে করোনা রোগী ভর্তি রয়েছে ১জন। আর আক্রান্ত সকলকে হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছে বলে জানাগেছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *