পাবনায় ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে সাতজনের মৃত্যু : একদিনে সনাক্ত ৩৪৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : ২৪ ঘণ্টায় পাবনায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় নতুন করে ৩৪৮ করোনা রোগী সনাক্ত হয়। মৃতদের মধ্যে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৩ জন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ জন এবং নিজ নিজ বাড়িতে আরও ৩ জন মারা গেছেন। সরকারিভাবে ৪ জনের কথা স্বীকার করা হয়েছে। এ সময়ে অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে ৩৪৮ জন করোনায় শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে ঈশ্বরদী উপজেলাতেই ২২৫ জন। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের পরিসংখ্যানবিদ সোহেল রানা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মৃতরা হলেন- পাবনার আমিনপুন থানার চরগোবিন্দপুর এলাকার মরহুম রমজান আলীর ছেলে জামাল আহমেদ (৮০), আমিনপুর থানার তালিমনগর মহল্লার মৃত ওয়াহেদ আলীর ছেলে হুমায়ুন আহমেদ (৬৫), পাবনা সদরের রাঘবপুর অঞ্চলের শাহিদা আক্তার (৫২)। এ ছাড়াও করোনায় রাজশাহী মেডিকেলে কলেজে মৃত ব্যাক্তি পাবনার সুজানগর উপজেলার মৃত ইউনুস আলীর ছেলে হামিদুল ইসলাম (৬৫)। এ ছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাড়িতে মারা গেছেন পাবনা শহরের দিলালপুর ফায়ার বিগ্রেড এলাকার মরহুম রওশন জান চৌধুরীর ছেলে আসাদ জান চৌধুরী (৫০), শহরের কফিলুদ্দিন পাড়ার মায়া বুঝি (৭৬) এবং আটঘরিয়া উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মহসিন আলী সরদার (৬৭)।
পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক ডা. সালেহ মোহাম্মদ আলী বলেন, করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ৩ জন মারা গেছেন। বাকি একজন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২৪ ঘণ্টায় ১৪৯৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩৪৮ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত্রেওর সংখ্যা ৬ হাজার ৩৪৩ জন। মারা গেছেন ২৭ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার জন। এখনও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১ হাজার ৩শ জন।
পাবনার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. কেএম আবু জাফর বলেন, জনসাধারণের মধ্যে পুরোপুরি সচেতনতা না আসা পর্যন্ত করোনা মোকাবিলা করা সম্ভব নয়। হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন চালু না হওয়ায় করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। আমাদের নিজেদের জন্য পিসিআর ল্যাব না থাকায় অন্য জেলায় পাঠাতে হচ্ছে নমুনা। সেখানে অতিরিক্ত চাপের কারণে এই রিপোর্ট পেতে দেরি হচ্ছে। তবে পাবনা মেডিকেল কলেজে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের কাজ চলছে। অচিরেই সমস্যার সমাধান হবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *