পাবনা শহীদ এম মনসুর আলী কলেজে ছাত্রীদের উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় হামলা ভাংচুর

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনা শহীদ এম মনসুর আলী কলেজে ছাত্রীদের উত্যাক্ত করার প্রতিবাদ করায় বখাটেরা কলেজে হামলা ভাংচুর চালিয়েছে। আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পিস্তল বের করে অধ্যক্ষকে প্রাণ নাশেরও হুমকী দেয়। ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা তাৎক্ষনিক ভাবে কলেজের সামনে বিক্ষোভ করে সন্ত্রাসীদের বিচার দাবী করে।
শহীদ এম মনসুর আলী কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সামাদ জানান, কলেজের ছাত্রীদের কমন রুমের সামনে কতিপয় বখাটেরা শিক্ষার্থীদের উত্যক্ত করছিল। শিক্ষার্থীরা বিষয়টি কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানালে আমি তাৎক্ষনিক ভাবে সেখানে গিয়ে তাদের চলে যেতে বাধ্য করি। এই ঘটনার আধাঘন্টা পর ওই বখাটেরা পার্শ্ববর্তী গোলাপবাগ এলাকার আকাশ, হাসান, পিন্টুসহ দলবল নিয়ে ক্যম্পাসে এসে ভাংচুর চালায়। আমি বাধা দিতে গেলে তারা আগ্নেয়াস্ত্র উচিয়ে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে হত্যার হুমকী দেয়। এ সময় শিক্ষক শিক্ষার্থীরা সন্ত্রাসীদের ভয়ে দিগি¦দিক ছুটাছুটি করে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যায়। এই ঘটনার পরপরই ক্যাম্পাসে সকল প্রকার শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।
কলেজের সিনিয়র শিক্ষক গোলাম মোস্তফা কামাল বলেন, এই ঘটনার পর আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত বিচার দাবী করি। অপর শিক্ষক মতমাইন্না মতিন বলেন, এই কলেজের জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ছেলে মেয়রা পড়তে আসে। স্থানীয় বখাটেরা মাঝে মাঝেই মেয়েদের উত্যক্ত করে শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। শিক্ষকরা এর প্রতিবাদ করলে তাদের হাতে লাঞ্চিত হতে হয়। এতে এই কলেজের শিক্ষার পরিবেশও বিঘিœত হচ্ছে, আমরা এর প্রতিকার চাই।
পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওবাইদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে সেখানে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেওয়া হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। ওসি আরো জানান, এ ঘটনায় কলেজ অধ্যক্ষ আব্দুস সামাদ বাদী হয়ে কয়েকজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের নামে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *