পারলে রণাঙ্গনে যাও: নিহত ভারতীয় পাইলটের স্ত্রী

আর্ন্তজাতিক: সোশ্যাল মিডিয়ায় যারা ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের উসকানি দিয়ে থাকেন তাদের একহাত নিয়েছেন নিহত এক ভারতীয় পাইলটের স্ত্রী। যুদ্ধ চাইলে চেঁচামেচি না করে তাদের সীমান্তের রণাঙ্গনে যাওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। তার ভাষায়, ‘আমরা যুদ্ধ চাই না। যুদ্ধের ক্ষতি কী সেটা আপনারা জানেন না। আরও নিনাদের প্রাণ যাক সেটা আমরা চাই না। সোশ্যাল মিডিয়ার যোদ্ধারা এবার থামুন। এখনও যদি আপনারা যুদ্ধ চান তাহলে সীমান্তে যান।’
গত সপ্তাহে ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মিরের বাদগামে নিহত হন স্কোয়াড্রন লিডার নিনাদ মান্দাভগানে। বুধবার বাদগামে একটি গ্রামের মাঠে রাশিয়ার তৈরি একটি এমআই-১৭ হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়। এ সময় এর চালকের আসনে থাকা ৩৩ বছরের নিনাদ মান্দাভগানে-সহ সাতজন নিহত হন। শোকের ছায়া নেমে আসে নিহতদের পরিবারে।
মহারাষ্ট্রে শুক্রবার পূর্ণ সামরিক মর্যাদায় ওই পাইলটের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। এ সময় সেখানে ‘সোশ্যাল মিডিয়া যোদ্ধাদের’ সংযম প্রদর্শনের আহ্বান জানান নিহত পাইলটের স্ত্রী বিজিতা মান্দাভগানে।
সোশ্যাল মিডিয়ায় যেসব ভারতীয় নাগরিক যুদ্ধের উসকানি দিচ্ছেন তাদের উদ্দেশে বিজিতা বলেন, ‘আপনারা যদি আমার নিনাদ বা উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের জন্য কিছু করতে চান, তাহলে চিৎকার না করে একটা ছোট্ট কাজ করুন। হয় বাহিনীর সঙ্গে নিজেরা যুক্ত হয়ে যান, নয়তো পরিবারের কাউকে সেই দায়িত্ব দিন। সেটা না পারলে আরও ছোট কাজ করুন। বাড়ির আশপাশ পরিষ্কার রাখুন। রাস্তা নোংরা করবেন না, জনসম্মুখে মূত্রত্যাগ করবেন না, নারীদের হয়রানি করবেন না।’
এনডিটিভি’র খবরে বলা হয়েছে, নিহত পাইলটের দুই বছরের শিশুকন্যা যখন বাবার কফিনে চুমু খাচ্ছিল, তখন সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশ তৈরি হয়। মেয়ের পাশে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকেন মা বিজিতাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *