প্রতিদিন আদা খাবেন যে ১০ কারণে

স্বাস্থ্য: আদায় রয়েছে এমন ঔষধিগুণ যা একাধিক রোগ থেকে দূরে রাখতে পারে আপনাকে। ১০০ গ্রাম আদায় রয়েছে ৮০ ক্যালোরি এনার্জি, ১৭ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ০.৭৫ গ্রাম ফ্যাট, ৪১৫ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম ও ৩৪ মিলিগ্রাম ফসফরাস। জেনে নিন আদার নানা স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে।
হজমের সমস্যা, বুক জ¦ালা বা অ্যাসিডিটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারে আদা। আদার রসে থাকা জিঞ্জেরল কাজ করে ব্যথার ওষুধের মতোই।
বছর খানেক আগে একদল মার্কিন গবেষক দাবি করেন, আর্থ্রাইটিসের মতো সমস্যাও কমে যেতে পারে আদার রসে। মিশিগান ইউনিভার্সিটির মার্কিন গবেষকদের মতে, ক্যানসারের কোষগুলির অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি রুখে দিতে পারে আদার রস।
আদায় থাকা অ্যান্টিহিস্টামাইন য় অ্যান্টিনসিয়া উপাদান মাথা ব্যথার অস্বস্তি থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে। ওজন কমাতে চাইলেও আদা রাখতে পারেন দৈনন্দিন খাবার তালিকায়। চটজলদি ক্যালোরি বার্ন করতে সক্ষম আদা। তাছাড়া, আদার রস কার্বোহাইড্রেট দ্রুত হজম করায়, মেটাবলিজম রেট বাড়ায়, ইনসুলিনের নিঃসরণ বাড়ায়। ফলে ওজন সহজেই নিয়ন্ত্রণে থাকে।
উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে রাখতে আদা অত্যন্ত কার্যকরী। এর জন্য প্রতিদিন ৭৫ থেকে ১০০ মিলিগ্রাম আদাই যথেষ্ট।
ঠা-া-গরমে খুসখুসে কাশি বা সর্দির সমস্যায় আদার রস খুবই কার্যকরী। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, ব্যাক্টেরিয়াঘটিত যেকোনও সংক্রমণ ঠেকাতে আদার রস কার্যকরী।
বমি বমি ভাব কমাতে আদার কুচি মুখে রাখতে পারেন।
তথ্য: জি নিউজ

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *