ফ্লয়েডের মৃত্যু বিশ্বকে বদলে দেবে: জো বাইডেন

বিদেশ : শেতাঙ্গ পুলিশের হাঁটুর নিচে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে ক্রোধ আর আবেগ; বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভে টগবগ করে ফুটছে পুরো আমেরিকা। একেতো করোনা ভাইরাস, আবার এই বিক্ষোভ, বলা চলে রীতিমতো চাপের মুখে ফেলে দিয়েছে দেশটিকে। এরইমধ্যে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু বিশ্বকে বদলে দেবে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রবীণ রাজনীতিবিদ জো বাইডেন।

তার এই কথা, বর্ণবাদ বৈষম্যের পরিবর্তনকে ইঙ্গিত করতে পারে। আবার মার্কিন রাজনীতিকেও ইঙ্গিত করতে পারে, যেহেতু তিনি আসছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দল থেকে প্রার্থী। মঙ্গলবার টেক্সাসের হিউস্টনে ব্যক্তিগতভাবে ফ্লয়েডের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সহানুভূতি প্রকাশ করেন জো বাইডেন। মিনিয়াপোলিসে যাওয়ার আগে ফ্লয়েড হিউস্টনেরই বাসিন্দা ছিলেন।

মঙ্গলবার সেখানে পারিবারিকভাবে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। পরে বাইডেন বলেন, ফ্লয়েডের মৃত্যু আমেরিকার ইতিহাসে বড় ধরনের এক পরিবর্তন। তার সঙ্গে যা ঘটেছে তা আসলে নাগরিক স্বাধীনতা, নাগরিক অধিকার এবং মানুষের সঙ্গে মর্যাদাপূর্ণ আচরণের ক্ষেত্রেও এক বড় পরিবর্তন বলে আমার ধারণা। ফ্লয়েডের পরিবার খুব চমৎকার উল্লেখ করে বাইডেন মার্কিন সংবাদমাধ্যমে বলেন, তার ছোট্ট মেয়েটি বাসায়ই ছিল।

সে বলেছে, ‘বাবা বিশ্বকে বদলে দেবে’। আমিও মনে করি, তার বাবা বিশ্বকে বদলে দেবেন। গত ২৫ মে মিনেসোটার মিনিয়াপোলিসে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তার অত্যাচারে আফ্রিকান-আমেরিকান জর্জ ফ্লয়েডের করুণ মৃত্যু হয়। এতে আমেরিকাসহ বিশ্বব্যাপী প্রতিবাদ-বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *