বাংলাদেশকে কেউ আর গরীব দেশ বলতে পারবে না- এমপি প্রিন্স

মিজান তানজিল, পাবনা: পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও পাবনা সদর -৫ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স বলেছেন,আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকাতে দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে বাংলাদেশ স্বাধীনের আগে বা পরে কোন সরকারের আমলে এ রকম উন্নয়ন হয় নাই।
এখন মানুষ সর্বক্ষেত্রে সুবিধা ভোগ করছে, রাস্তা-ঘাট,ব্রীজ-কালভার্ট,স্কুল-কলেজ ,মাদ্রাসা সকল জায়গায় উন্নয়নের ছোঁয়া পরেছে এই সরকারের আমলে।
সোমবার দুপুরে পাবনা সদর উপজেলার আতাইকুলা ইউনিয়নে ১ কোটি ৪৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে
মধুপুর আরএইচডি –শিবপুর ঘাট রাস্তা উন্নয়ন কাজ ও মালিগাছা ইউনিয়নে ২ কোটি ৮৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে রুপপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা ভীতবিশিষ্ট চারতলা নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন শেষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
এমপি বলেন,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে ভাবে দেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে,এই ধারাবাহিকতায় আগামী ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে মধ্যম আয়ের দেশ। অর্থাৎ স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকা থেকে বাংলাদেশ বেরিয়ে আসবে।
এমপি প্রিন্স আরো বলেন, একটি দেশকে স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে (ডেভেলপিং কান্ট্রি-ডিসি) পরিণত হতে গেলে যে তিন সূচকের যোগ্যতা অর্জন করতে হয়, বাংলাদেশ সেই তিনটি শর্তই পূরণ করেছে। প্রথম শর্তে দেশে মাথাপিছু আয় ১২৪২ মার্কিন ডলার হতে হয়, যা বাংলাদেশ অনেক আগেই অতিক্রম করেছে। এখন দেশে মাথাপিছু আয় ১৬১০ মার্কিন ডলার। দ্বিতীয় শর্তে মানবসম্পদের উন্নয়ন, অর্থাৎ দেশের ৬৬ ভাগ মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হওয়ার কথা বলা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অর্জন করেছে ৭২ দশমিক ৯ ভাগ। আর তৃতীয় শর্তে বলা হয়েছে, অর্থনৈতিকভাবে ভঙ্গুর না হওয়ার মাত্রা ৩২ ভাগের নিচে থাকতে হবে। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এই মাত্রা ২৫ ভাগ।
বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় গেলে আমাদের মর্যাদা বেড়ে যাবে। বিশ্বের কাছে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জল হবে। দেশের মানুষের এক ধরনের মনস্তাত্বিক অর্জন হবে। কেউ আর বাংলাদেশকে গরিব বা দরিদ্র দেশ বলতে পারবে না।
এসময় সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন, আটঘরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাওয়াল বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামসুন্নাহার রেখা, উপজেলা প্রকৌশলী ওলীউর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি শ্রী চন্দন কুমার চক্রবর্তী, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সদর উপজেলার উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর পাবনার উপসহকারী প্রকৌশলী মিল্টন,জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহব্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান সুইট,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রাসেল আলী মাসুদ, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক হিরোক হোসেন,মালিগাছা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম শরিফ,পৌর আওয়ামীলীগ নেতা কামরুজ্জামান রকি,মালিগাছা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল করিম, রুপপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম,আতাইকুলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মঞ্জু মাষ্টার,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খন্দকার আহমেদ শরীফ ডাবলু, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সরদার স্বপন আহমেদ,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান শেখ,যুবলীগ নেতা ফিরোজ খান,পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রকিসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *