বার্সেলোনাকে ক্লাব ছাড়ার কথা জানিয়ে দিয়েছেন মেসি

স্পোর্টস: সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে নতুন মৌসুম শুরু হবার আগেই ক্লাব ছাড়ার কথা বার্সেলোনাকে জানিয়ে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। মঙ্গলবার এক ফ্যাক্স বার্তায় তিনি ক্লাবকে নিজের ইচ্ছার কথা বর্ণনা করেছেন। আর এর মাধ্যমে বার্সেলোনার সাথে ২০ বছরের সম্পর্কের শেষটাও অনেকেই দেখে ফেলেছেন। ছয় বারের ব্যালন ডি’অর বিজয়ী মেসি বার্সেলোনার হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। জিতেছেন চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা। অথচ ক্লাবের সাথে তার সম্পর্কের শেষটা খুব একটা সুখকর হচ্ছেনা বলেই অনেকে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। ক্লাবের প্রতি নিজের ক্ষোভের বিষয়টিও মেসি তার ফ্যাক্স বার্তায়।

উল্লেখ করেছেন। চলতি বছরের শুরু থেকেই মেসির সাথে বার্সেলোনার সম্পর্কের অবনতি হতে থাকে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে কোয়ার্টার ফাইনালে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে বিদায়ের পর মেসির ক্লাব ছাড়ার বিষয়টি জোড়েসোড়ে সামনে চলে আসে। এই পরাজয়ে ২০০৭ সালের পর প্রথমবারের মত শিরোপাবিহীন মৌসুম শেষ করেছে বার্সা। মেসির সাথে বার্সার চুক্তির মেয়াদ আরো এক বছর বাকি আছে। তবে বর্তমান চুক্তি অনুযায়ী মৌসুম শেষে ক্লাব ছাড়ার সুযোগ আছে মেসির। সেক্ষেত্রে রিলিজ ক্লজও প্রযোজ্য হবেনা। কারণ মেসি যেতে চাইলে তিনি ফ্রি এজেন্ট হিসেবে পরিগনিত হবেন। কিন্তু তিনি যেতে না চাইলে এবং বার্সা ছাড়তে না চাইলে তাকে কিনতে যেকোন ক্লাবকে রিলিজ ক্লজের ৭০০ মিলিয়ন ইউরো ব্যয় করতে হবে। মেসিকে নিয়ে মৌসুম শেষ হবার আগে থেকেই যেহেতু গুঞ্জন শুরু হয়েছিল সে কারণে তার প্রতি ম্যানচেস্টার সিটি, পিএসজি ও ইন্টার মিলান আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। মেসিকে নিয়ে বার্সার এই দ্বন্দ্বের জেড়ে সবচেয়ে বেশী হতাশ হয়েছে বার্সার সমর্থকরা।

দীর্ঘদিনের সম্পর্কে মেসিকে সামনে থেকে তারাই সবসময় সমর্থন যুগিয়ে গেছেন। সে কারনেই বার্সা সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তামেউর পদত্যাগের দাবীতে ক্যাম্প ন্যুর বাইরে মেসি সমর্থকরা বিক্ষোভ শুরু করেছে। স্টেডিয়ামের বাইরে জড়ো হওয়া ২৮ বছর বয়সী এক সমর্থক রুবেন তেয়েরো বলেছেন, ‘আমি মেসিকে অন্য কোথাও দেখতে চাই। আমি এটা কোনভাবেই বিশ^াস করবো না। আমাদের এখন একটাই দাবী বার্তামেউকে ক্লাব ছাড়তে হবে।’ এদিকে ইএসপিএন’র একটি সূত্র গত সপ্তাহে জানিয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি ম্যানেজার পেপ গার্দিওলার সাথে মেসির সম্ভাব্য দলত্যাগের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বার্সেলোনার এক ব্রাজিলিয়ান সাংবাদিক বলেছিলেন মেসি তার সাবেক কোচের কাছেই আবারো ফিরে যেতে চান। বার্সেলোনা এখনও মেসির এই দলত্যাগের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

তারা এখনো মেসিকে দলে ধরে রাখতে আশাবাদী। তারা মনে করছে মেসির সাথে সমঝোতার এটি প্রথম ধাপ হতে পারে। ইয়ুথ একাডেমি থেকে মাত্র ১৩ বছর বয়সে মেসি মূল দলে যোগ দিয়েছিলেন। ২০০৪ সালে ১৭ বছর বয়সে মূল দলে অভিষেক হয়েছিল। এ পর্যন্ত ক্লাবের হয়ে রেকর্ড ৬৩৪টি গোল করেছেন। কিন্তু বায়ার্নের কাছে বিধ্বস্ত হবার পরেই বার্সেলোনার সমৃদ্ধ ক্লাব ইতিহাসে কালো ছায়া দেখা দেয়। কোচ কিকে সেতিয়েনের সাথে স্পোর্ট ডাইরেক্টর এরিক আবিদালকে দল ছাড়তে হয়।

স্প্যানিশ গণমাধ্যম সূত্রমতে গত সপ্তাহে নতুন কোচ রোন্যাল্ড কোম্যানের সাথে মেসি দেখা করেছেন। কোম্যান বার্সাকে লড়াই করে আবারো শীর্ষ পর্যায়ে সম্মানের সাথে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। একইসাথে তিনি জানিয়েছেন মেসিকে আরো কিছুদিন ক্লাবে ধরে রাখতে তিনি যথাসাধ্য চেস্টা করবেন। কিন্তু তার পরিকল্পনায় লুইস সুয়ারেজ, আরতুরো ভিডাল, ইভান রাকিটিচ ও স্যামুয়েল উমতিতির কোন জায়গা নেই বলেও জানিয়ে দিয়েছেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!