বিশ্ব নেতাদের নিন্দা, বিক্ষোভের আহ্বান এনএলডি’র

বিদেশ : গত নির্বাচন অনিয়মের অভিযোগ তুলে ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি’র (এনএলডি) নেত্রী অং সান সু চি এবং প্রেসিডেন্ট উইন মিনতকে আটক করে দেশটির ক্ষমতা দখল করেছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী- এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা, আর বিক্ষোভের আহ্বান জানিয়েছে এনএলডি। মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, “মিয়ানমারে যা ঘটছে তা আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে দেখছি। মিয়ানমারে গণতান্ত্রিকভাবে ক্ষমতার হস্তান্তর প্রক্রিয়ার প্রতি ভারতের সমর্থন সব সময়ই অবিচল ছিল। আমরা বিশ্বাস করি যে আইনের শাসন এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া সমুন্নত থাকবে। আমরা নিবিড়ভাবে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি।” জাপানের টোকিওতে ইউনাইটেড ইউনিভার্সিটির সামনে অং সান সু চির পক্ষে বিক্ষোভ করেছে মিয়ানমারের একদল অধিকারকর্মী। মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর অং সান সু চিসহ জ্যেষ্ঠ রাজনৈতিক নেতাদের সামরিক বাহিনী আটক করার পর এই বিক্ষোভ হলো। জাপানের চিফ ক্যাবিনেট সেক্রেটারি কাসুনোবু কাটো বলেছেন, “জাপান বিশ্বাস করে যে, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় আলোচনার মাধ্যমে দুই পক্ষের সমস্যার সমাধান করা উচিত।” এদিকে, সেনা অভ্যুত্থানকে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয় উল্লেখ করে এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করেনি কম্বোডিয়া। এছাড়া, জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এসব ঘটনা মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক সংস্কারে মারাত্মক আঘাত বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। মিয়ানমারের জনগণের ইচ্ছার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এবং গণতান্ত্রিক রীতিনীতি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেছেন, শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে যে কোনো মতপার্থক্য সমাধান করা উচিত। অন্যদিকে, মিয়ানমারের ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি, এনএলডি পার্টি সোমবার জানিয়েছে যে, তাদের নেতা অং সান সু চি জনগণকে এই সেনা অভ্যুত্থান মেনে না নিয়ে বিক্ষোভের আহ্বান জানিয়েছেন। এক বিবৃতিতে বলা হয়, “সামরিক বাহিনীর এই পদক্ষেপ দেশকে আবারো স্বৈরতন্ত্রের দিকে ঠেলে দেয়ার পদক্ষেপ।” বিবৃতিতে এনএলডি নেতা অং সান সু চির নাম উল্লেখ করে বলা হয়, “আমি জনগণকে এটি মেনে না নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। তাদের প্রতিক্রিয়া জানাতে এবং আন্তরিকভাবে এই সামরিক পদক্ষেপের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করার আহ্বান জানাচ্ছি।” সূত্র- বিবিসি

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *