বেনজেমা ‘সেক্স টেপ’ কান্ডে দোষী প্রমাণিত

স্পোর্টস: ২০১৫ সালের আলোচিত সেই ‘সেক্স টেপ’ কা-ে দোষী প্রমাণিত হয়েছেন ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা। সাবেক সতীর্থ মাথিউ ভালবুয়েনাকে ব্ল্যাকমেইল করার সঙ্গে জড়িত থাকায় তাকে এক বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ফ্রান্সের একটি আদালত। বুধবার আদালতের রায়ে তাকে ৭৫ হাজার ইউরো জরিমানাও করা হয়েছে। ভেরসাইয়ের এই আদালতে রায়ের সময় উপস্থিত ছিলেন না বেনজেমা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে বুধবার মলডোভার ক্লাব শেরিফ তিরাসপুলের মাঠে খেলবে রিয়াল মাদ্রিদ। দলের সঙ্গে আছেন তিনি। তবে, এই রায়ের বিরুদ্ধে বেনজেমা আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী। বরাবরই নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন বেনজেমা। রায় ঘোষণার পর তার আইনজীবী অঁতোয়ান ভেই সাংবাদিকদের বলেন, “এই রায়ে কোনোভাবেই বাস্তব ঘটনার প্রতিফলন পড়েনি।” এ বিষয়ে রিয়াল তাৎক্ষনিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি বলে রয়টার্স তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে। কৌশুলিদের মূল অভিযোগ ছিল, ব্ল্যাকমেইলারকে অর্থ দিয়ে বিষয়টি লোকচক্ষুর আড়ালে রাখার জন্য মাথিউ ভালবুয়েনাকে প্ররোচিত করেছিলেন বেনজেমা। মূলত এর প্রেক্ষিতেই আদালতে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করেন তারা।

প্রসিকিউটরদের মতে, ২০১৫ সালের জুনে প্যারিসের পশ্চিমাঞ্চলে ফ্রেঞ্চ দলের অনুশীলনের সময় ভালবুয়েনা ব্ল্যাকমেইলারদের প্রথম ফোন পান, তখন তাকে ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। ভালবুয়েনা এর আগেই আদালতে বলেন, ব্ল্যাকমেইলার পরিষ্কারভাবে অর্থ চেয়েছিলেন। তার ক্যারিয়ার ও জাতীয় দলে জায়গা খেলা নিয়েও ভয় দেখিয়েছিলেন।

গত অক্টোবরে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ব্ল্যাকমেইলাররা প্রথমে সাবেক ফরাসি স্ট্রাইকার জিব্রিল সিসেকে প্রস্তাব দিয়েছিল ভালবুয়েনাকে অর্থ দিয়ে বিষয়টি মিটমাট করার জন্য বোঝাতে। তবে উল্টো তিনি এই ষড়যন্ত্রের বিষয়ে তাকে সতর্ক করে দেন বলে জানান ভালবুয়েনা। এরপরই নাকি ব্ল্যাকমেইলাররা বেনজেমাকে এই কাজে নিয়োগ দেয়।

২০১৫ সালের এই ঘটনা প্রকাশ হলে বেনজেমার মতো ভালবুয়েনাও জাতীয় দলে জায়গা হারান। ৩৩ বছর বয়সী বেনজেমা সব মিলিয়ে জাতীয় দলের হয়ে ৯৪টি ম্যাচ খেলেছেন। ২০১৫ সালের পর প্রথম ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের দলে ডাক পান তিনি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *