অসহায় মানুষের জন্য ”মানবতা বিপণি”

বেড়া (পাবনা) সংবাদদাতা : বিপণি বিতান বলতে আমরা বুঝি যেখানে টাকা দিয়ে জিনিসপত্র কিনে আনতে হয়। কিন্তু পাবনার বেড়া উপপজেলার কাশিনাথপুর বিজ্ঞান স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ব্যতিক্রমী উদ্যেগে প্রথমবারের মত ”মানবতা বিপণি” যাত্রা শুরু হয়েছে”। যেখানে যে কেউ ইচ্ছে করলেই তার অব্যবহৃত কাপড় চোপড় আপনার ব্যবহার উপযোগী জিনিস ‘মানবতা বিপণি’ সাইনবোর্ড সম্বলিত একটি বক্সে ফেলে আসতে পারেন।

এখান থেকে অসহায়, দরীদ্র ও দুস্থ ব্যক্তিরা প্রয়োজনীয় জিনিস নির্দ্বিধায় নিয়ে যান। এই বক্সের মধ্যে রাখা হয়েছে কাপড়-চোপড় ও জুতা-স্যান্ডেল। গত ৩/৪ দিন আগে এটি স্থাপন করা হলে ব্যাপক আলোচনায় চলে এসেছে মানুষের মাঝে। প্রথম দিকে স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা তাদের ব্যবহার উপযোগী অপ্রয়োজনীয় কাপড়চোপড় ও জুতা-স্যান্ডেল দিয়ে শুরু করলেও এখন অনেকেই তাদের জিনিসপত্র উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে দিয়ে যাচ্ছেন।

কাশিনাথপুর বিজ্ঞান স্কুলের প্রধান শিক্ষক আলাউল হোসেন জানান, অত্র এলাকায় অনেক গরীব মানুষ আছে, যাদের শীতবস্ত্র তো দূরের কথা, পড়নের কাপড়-চোপড়ও জোটে না। এই অসহায় ও দুস্থদের দুর্দশা চোখে দেখলে ভালো লাগে না। প্রায় প্রতিদিনই স্কুলে গরীব-অসহায় ব্যক্তিরা সাহায্যের জন্য আসে।এ অবস্থায় আমি আমার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সাথে পরামর্শ করে এই উদ্যোগ নিয়েছি।

এ স্কুলের নবম শ্রেণির কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, প্রতি বছর বিভিন্ন মানুষ শীতবস্ত্র বিতরণ করে কিন্তু অনেকে তা পায় না। তারা বলে, অসহায় মানুষের স্বার্থে এটি স্থাপন করা হয়েছে। আমাদের সমাজে এমন অনেক ব্যক্তি আছে যাদের বাড়িতে অব্যবহৃত অনেক পুরাতন কিংবা নতুন কাপড়, জুতা-স্যান্ডেল বা থালা-বাসন থাকে, সেইগুলো এই মানবতা বিপণিতে রেখে যেতে পারেন। আমরা এই বিপণি থেকে সেই সকল কাপড় বা শীতবস্ত্রগুলো সুন্দর করে সাজিয়ে রাখবো। যদি কোন অসহায় মানুষের প্রয়োজন হয়, তাহলে নিজ ইচ্ছায় সেই কাপড়টি এখান থেকে বিনামূল্যে নিয়ে যেতে পারে।

কাশিনাথপুর বিজ্ঞান স্কুলের সভাপতি ডা. আমিরুল ইসলাম সানু জানান, এটি করার আরেকটি উদ্দেশ্য হলো- প্রথমত আমাদের শিক্ষার্থীদের সততার শিক্ষা দেয়া। দ্বিতীয়ত মানুষকে সচেতন করা। বিত্তবান মানুষ অসহায় মানুষের পাশে যেন দাঁড়ায়। তিনি আরও জানান, আমরা পরবর্তীতে অসহায় মানুষকে এক বেলা করে খাবার দেবার উদ্যোগ নিতে আগ্রহী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *