বেড়ায় নিজ গলায় ধারালো বটি চালিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনার বেড়া উপজেলার পৌর এলাকায় রফিকুল ইসলাম (৩৮) নামের এক যুবক শারীরিক যন্ত্রণা সইতে না পেরে নিজের গলায় ধারালো বটি চালিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার (০২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার পৌর এলাকার শম্ভুপুর মহল্লায় এ ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ও নিহত ব্যক্তির স্বজনরা জানান,  বেড়া পৌর এলাকার শম্ভুপুর মহল্লার রফিকুল ইসলাম দিনমজুরের কাজ করতেন। মাস দুয়েক আগে তিনি একটি বাড়িতে কাজ করতে গিয়ে ওপর থেকে পড়ে যান। এতে তাঁর ডান পায়ের হাঁটুর কাছে হাড় ভেঙে যায়। উন্নত কোনো স্থানে চিকিৎসা করানোর সামর্থ না থাকায় স্থানীয় পর্যায়ে তিনি চিকিৎসা নেন। কিন্তু তাঁর পায়ের যন্ত্রণা কিছুতেই কমছিল না। অসহ্য যন্ত্রনায় তিনি প্রায়ই চিৎকার করতেন।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি যন্ত্রণায় চিৎকার করার এক পর্যায়ে ঘরে থাকা ধারালো বটি নিজের গলায় চালিয়ে আত্মহত্যা করেন। এতে তাঁর শ্বাসনালীসহ গলা গভীরভাবে কেটে যায়। ঘটনার সময় তিনি ঘরে একা ছিলেন। পরে তাঁর স্ত্রীসহ স্বজনেরা ঘরে ঢুকে বিষয়টি বুঝতে পেরে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাঁকে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

বেড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জিল্লুর রহমান বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে। এর পরেও আমরা ওই ব্যক্তির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠাবো। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *