ব্রেক্সিটে ভোট দিতে সন্তান প্রসবের সময় পেছালেন টিউলিপ

ডেস্ক রিপোর্ট : ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বের হয়ে যাওয়ার বিষয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে চূড়ান্ত ভোট অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গলবার। এতে ভোট দিতে সন্তান প্রসবের সময় পিছিয়েছেন বিরোধী লেবার পার্টির এমপি টিউলিপ সিদ্দিক। বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের তিন বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনের এমপি টিউলিপ অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সন্তান জন্ম দেয়ার তারিখ দুইদিন পিছিয়ে দিয়েছেন।

এ কথা নিশ্চিত করে টিউলিপের স্বামী ক্রিস পার্সি তাকে হুইলচেয়ারে করে পার্লামেন্টে নিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে টিউলিপ বলেন, আমার ছেলে একদিন পর পৃথিবীতে আসলেও যদি এ বিশ্বে ইউরোপ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে শক্তিশালী সম্পর্ক গড়ার ভালো সুযোগ আসে, তবে তাই হোক।

চিকিৎসকরা তাকে এমনটা করতে নিষেধ করেছিলেন জানিয়ে টিউলিপ বলেন, রয়েল ফ্রি হাসপাতাল তাদের নিয়মকানুন এবং স্বাস্থ্যসেবার মানের বিষয়ে অত্যন্ত কঠোর। আমার গর্ভাবস্থা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এবং আমি চিকিৎসকদের পরামর্শের বিপরীতে গিয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি জানান, তাকে ভোট দিতে যাওয়ার জন্য কেউ চাপ দেয়নি। কিন্তু এটি তার জীবনের সবচেয়ে বড় ভোট। আমার স্বামীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেছি। তিনি আমাকেই সিদ্ধান্ত নিতে বলেছেন এবং আমার সিদ্ধান্তের প্রতি তার পূর্ণ সমর্থন আছে। আমি আমার বাচ্চার ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে যদি কোনও জরুরি পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় তবে অবশ্যই আমি সবার আগে আমার সন্তানের সুস্থতার কথা ভাববো।

টিউলিপের দুই বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। মেয়ে জন্ম দেয়ার সময় তার গর্ভকালীন জটিলতা দেখা দিয়েছিল। টিউলিপের এবার সিজার হওয়ার কথা ছিল আগামী ৪ ফেব্রুয়ারিতে। কিন্তু ডায়াবেটিসসহ কিছু জটিলতা দেখা দেয়ায় হ্যাম্পস্টেডের রয়েল ফ্রি হাসপাতালের চিকিৎসকরা সিজারিয়ানের তারিখ এগিয়ে ১৪ বা ১৫ জানুয়ারিতে করার পরামর্শ দিয়েছিলেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *