ভারতের ১৬ জেলায় পঙ্গপালের হানা

বিদেশ : পাকিস্তান থেকে ভারতে ঢুকে পড়েছে মরু পঙ্গপালের বিশাল ঝাঁক। ইতোমধ্যেই রাজস্থানের অন্তত ১৬টি জেলায় হানা দিতে শুরু করেছে তারা। শস্যহীনতা ও অনুকূল বাতাসের কারণে অঞ্চলটিতে পঙ্গপালেরা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। রাজস্থানের কৃষি কমিশনার ড. ওম প্রকাশ বলেন, ‘মাঠে কোনও ফসল নেই।

শস্য বিনাশ ও স্থায়ী হওয়ার মতো জায়গা না পেয়ে খাবারের সন্ধানে পঙ্গপালের ঝাঁকগুলো দূর-দূরান্তে ছড়িয়ে পড়ছে।’ তিনি বলেন, ‘পঙ্গপালগুলো দিনদিন বিরক্তিকর হয়ে উঠছে। রাতের বেলা নিয়ন্ত্রণ অভিযানের সময় তারা ট্রাক্টরের শব্দ বা আলো দেখলেই উড়ে যাচ্ছে।’ টানা ২৬ বছর পর গত বছরের মাসে আবারও মরু পঙ্গপালের হানার মুখে পড়েছিল রাজস্থান।

এ হামলা চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্থায়ী হয়েছিল। দীর্ঘদিনের এ তা-বে রাজ্যটির অন্তত ১২টি জেলার ৬ লাখ ৭০ হাজার হেক্টর জমির ফসল ধ্বংস করেছিল পঙ্গপালের ঝাঁকগুলো। রাজ্য সরকারের হিসাবে, এতে ক্ষতির পরিমাণ ছিল অন্তত এক হাজার কোটি রুপি। এরপর গত ১১ মে পাকিস্তান সীমান্তবর্তী গঙ্গানগর জেলায় ফের পঙ্গপালের উপস্থিতি দেখা দেয়।

ইতোমধ্যেই বুন্দি, সিকার, প্রতাপগড়, চিত্রগড়সহ বেশ কয়েকটি জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে বিশাল বিশাল ঝাঁক। ভারতের কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত পঙ্গপাল সতর্কতা সংস্থা (এলডব্লিউও) মে-জুন মাসে আবারও শস্য বিনষ্টকারী এ পতঙ্গের বড় হামলার আশঙ্কা করছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, পঙ্গপাল মানব সম্প্রদায়ের জন্য চরম ক্ষতিকর একটি পতঙ্গ। এদের একেকটি ঝাঁকে লাখ থেকে কয়েক কোটি পর্যন্ত পতঙ্গ থাকতে পারে। তাদের ছোট একটি ঝাঁক মাত্র একদিনেই ৩৫ হাজার মানুষের সমান খাবার সাবাড় করে দিতে পারে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *