ভারতে আটক পাকিস্তানি কবুতর মোদির কাছে ফেরত চান মালিক

বিদেশ : পাকিস্তানের এক গ্রামের বাসিন্দা ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে আহ্বান জানিয়েছেন, যেন ভারতে আটকে রাখা তার পোষা কবুতরটি ফিরিয়ে দেওয়া হয় তাকে। গোয়েন্দাগিরির অভিযোগে ওই কবুতরকে আটকে রেখেছে ভারতীয় পুলিশ। খবর ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির। ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে কবুতর মালিকের বাড়ি।

তিনি বলছেন, ঈদ উদযাপনের সময় ওই কবুতরটি তিনি ছেড়ে দেন। তবে ভারতীয় পুলিশের দাবি, কবুতরটির পায়ে একটি রিং পরানো ছিল, তাতে আছে একটি সংকেতলিপি (কোড)। তারা ওই সংকেতলিপির পাঠোদ্ধার করার চেষ্টা করছেন। তবে কবুতরের ওই মালিক বলছেন, ভারতে আটকে রাখা ওই কবুতরটি তার। আর পায়ে যে কোড আছে সেটা প্রকৃতপক্ষে তার মুঠোফোন নাম্বার।

পাকিস্তানের জাতীয় দৈনিক ডনের প্রতিবেদন অনুযায়ী ওই ব্যক্তির নাম হাবিবুল্লাহ। তার বাড়িতে কয়েক ডজন পোষা কবুতর রয়েছে। সেটি সেগুলোর মধ্যে একটি। হাবিবুল্লাহ ডনে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, তার ওই কবুতর হলো শান্তির প্রতীক।

আর নিষ্পাপ একটা পাখিকে এরকভাবে নির্যাতন করা থেকে ভারতের বিরত থাকা উচিত। সোমবার ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর সীমান্ত থেকে গ্রামবাসীরা কবতুরটি উদ্ধারের পর তা স্থানীয় পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

কাশ্মীর হলো ভারত-পাকিস্তানের উভয়ের দাবি করা একটি বিতর্কিত অঞ্চল। পারমাণবিক শক্তিধর দুই দেশের মধ্যে ওই অঞ্চলে উভয় দেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যে প্রায়ই হামলা পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে। এবারই প্রথম পাকিস্তান থেকে ভারতে উড়ে গিয়ে কোনো কবুতর বিপদে পড়লো না, এর আগেও এমন হয়েছে।

এর আগে ২০১৫ সালে কাশ্মীরে সীমান্ত লাগোয়া একটি গ্রামে ১৪ বছরের এক কিশোর সাদা রংয়ের একটি কবুতর দেখতে পায়। তারপর তা কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এ ছাড়া ২০১৬ সালে আরও একটি কবুতর পুলিশ হেফাজতে ছিল। যার পায়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে হুমকি দেওয়া একটি নোট পাওয়া যায়।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *