ভারতে করোনার ৩য় ঢেউ ৬ থেকে ৮ মাস পর

বিদেশ : আড়াই মাস পর ভারতে করোনায় দৈনিক মৃত্যু নেমে এসেছে এক হাজারের নিচে। আর তৃতীয় ঢেউয়ে শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমাতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। করোনা থেকে সেরে ওঠার ৪ থেক ৬ সপ্তাহ পর শিশুদের মধ্যে বাড়ছে বিরল মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম বা এমআইএস-সি রোগের ঝুঁকি। এদিকে ডেল্টা ধরনে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা সহ বেশ কয়েকটি দেশে জারি করা হয়েছে কঠোর বিধি নিষেধ। ভারতে আড়াই মাস পর দৈনিক মৃত্যু হাজারের নিচে নেমে এসেছে। ২৪ ঘন্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৯শ ৭৯ জনের। শনাক্ত ৪৬ হাজার ১শর বেশি। এদিকে গবেষকরা বলছেন, দেশটিতে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আগে ৬ থেকে ৮ মাস সময় পাওয়া যাবে। এই সময়ের মধ্যে মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো সহ শিশুদের টিকাদান কার্যক্রম সেরে ফেলার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা দেশটিতে করোনা থেকে সেরে ওঠার ৪ থেক ৬ সপ্তাহ পর শিশুদের মধ্যে বাড়ছে বিরল মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম বা এমআইএস-সি রোগের ঝুঁকি।এর ফলে শিশুদের মধ্যে মস্তিষ্ক, কিডনি, হার্টের মত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলোতে মারাত্মক প্রদাহের আশঙ্কাসহ জীবননাশের ঝুঁকি দেখা দেয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আক্রান্ত শিশুদের ভেন্টিলেশনের ব্যবস্থাসহ নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসা নিতে হয়। তবে, দেশটির বিশেষজ্ঞরা বলছেন রোগটির ভয়াবহতা, কারণ বা কতজন এতে আক্রান্ত সে বিষয়ে তাদের কাছে তেমন কোন তথ্য নেই। অন্যদিকে, করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় ১৪ দিনের জন্য কঠোর বিধি নিষেধ জারি করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার। আর ডেল্টা ধরনের কারণে অস্ট্রেলিয়ার ৮০ শতাংশ মানুষ করোনা বিধি নিষেধের মধ্যে রয়েছে। সংক্রমণ আশঙ্কাজনকভাবে বাড়তে থাকায় সোমবার জরুরি বৈঠকে বসছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এদিকে ডেল্টার ধরনের সংক্রমণ রোধে টিকা নেয়া ব্রিটেনের অধিবাসীদেরও জার্মানিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়ার পরিকল্পনা করছে দেশটির সরকার। বিশ্বে করোনায় একদিনে প্রাণ হারিয়েছেন ৫ হাজার ৯শ ৬০ জন। একদিনে শনাক্ত ৩ লাখ ৯ হাজারের বেশি। এনিয়ে বিশ্বে মোট শনাক্ত ১৮ কোটি ১৮ লাখ ৫১ হাজার ছাড়িয়েছে। মোট মৃত্যু ৩৯ লাখ ৩৮ হাজারের বেশি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!