ভারতে যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হয়ে ২ পাইলটের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গতকাল সকালে স্থানীয় সময় হিন্দুস্তান অ্যারোনটিকস লিমিটিডের (হ্যাল) নিয়ন্ত্রণাধীন বিমানবন্দরে সাড়ে দশটার দিকে এ দুর্ঘটনা হয়। এতে মিরাজ ২০০০ এর দুই চালক নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ভারতের বিমানবাহিনী। যান্ত্রিক গোলযোগের কারণেই বিমানটি দুর্ঘটনা পড়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে; জানিয়েছে এনডিটিভি, আনন্দবাজার। “বিমানবাহিনীর দুই চালক, স্কোয়াড্রন লিডার সমীর অ্যাবরল এবং স্কোয়াড্রন লিডার সিদ্ধার্থ নেগি বেঙ্গালুরুর হ্যাল বিমানবন্দরে মিরাজ ২০০০ ট্রেইনার এয়ারক্রাফট দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন,” জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা। দুই চালক ১৯৮৫ সালে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগ দেন, জানিয়েছে এনডিটিভি। দেশটির বিমানবাহিনীতে এখনও ৫০টির মতো মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমান আছে। ফরাসী প্রতিষ্ঠান দাসোর তৈরি বিমানগুলোর আধুনিকায়নের কাজ চলছিল। একটি মাত্র ইঞ্জিন বিশিষ্ট হাল্কা ওজনের এই বিমান সাধারণত প্রশিক্ষণের কাজে ব্যবহৃত হয় বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার। শুক্রবার সকালে হ্যালের রানওয়ে থেকে সেটি রওনা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু টেক অফের পরই বিপত্তি বাধে। রানওয়ের উপর মুখ থুবড়ে পড়ে বিমানটি। দুর্ঘটনার হাত থেকে পাইলটদের রক্ষা করতে এ ধরনের বিমানে বিশেষ প্রযুক্তি থাকে। আসনের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে প্যারাসুটও। অবশ্য এতেও রক্ষা হয়নি। বিমান থেকে বেরোতে গিয়েই জ¦লন্ত ধ্বংসাবশেষের উপর পড়েন দুই চালক। গুরুতর জখম অবস্থায় তাদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই মারা যান তারা। এই নিয়ে চলতি সপ্তাহেই ভারতের বিমানবাহিনীর দু’টি বিমান দুর্ঘটনায় পড়ল। সোমবার উত্তরপ্রদেশের কুশিনগর জেলায় ওই বিমান দুর্ঘটনায় অবশ্য চালক অক্ষত অবস্থায় বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছিলেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *