ভারতে শনাক্তের নতুন রেকর্ড, আক্রান্ত ছাড়ালো ৮ লাখ

বিদেশ: ভারতে ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের শনাক্তের নতুন রেকর্ড হয়েছে। শনিবার ভারতীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ২৭ হাজারের বেশি। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত শনাক্তের ঘটনা। আর এর ফলে দেশটির মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বুলেটিনের জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৭ হাজার ১৪৪। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৫১৯ জনের। দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যার নিরিখে এখনও পর্যন্ত এটিই সর্বাধিক। এই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১৯ হাজার ৮৭৩ জন। ভারতে এখন মৃত্যুহার ২ দশমিক ৬৯ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ৬২ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

বুলেটিন অনুসারে ১১ জুলাই শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৮ লাখ ২০ হাজার ৯১৬। কোভিড-১৯ সংক্রমণে এখন পর্যন্ত হয়েছে ২২ হাজার ১২৩ জনের। সংক্রমণ সারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লাখ ১৫ হাজার ৩৮৬ জন। ভারতে এখন অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ২ লাখ ৮৩ হাজার ৪০৭। রাজ্যভিত্তিক হিসাবে, মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক। মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাণিজ্যনগরী মুম্বাই। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩৮ হাজার ৪১৬।

সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ৮৯৩ জনের। কোভিড-১৯ সারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৬২৫ জন। মহারাষ্ট্রে এখন অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৯৫ হাজার ৯৪৩। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। দক্ষিণের এই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৩০ হাজার ২৬১। মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৮২৯ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮২ হাজার ৩২৪ জন। এই রাজ্যে অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৪৬ হাজার ১০৮। তৃতীয় স্থানে রয়েছে রাজধানী শহর দিল্লি।

এখানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯ হাজার ১৪০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩০০ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৪ হাজার ৬৯৪ জন। দিল্লিতে অ্যাকটিভ কেস ২১ হাজার ১৪৬। চতুর্থ স্থানে রয়েছে গুজরাট। এই রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজার ৬৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২২ জনের, সুস্থ হয়েছেন ২৮ হাজার ১৪৭ জন, অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৯ হাজার ৯০০।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *