ভোটে অংশ নিতে পারছেন না বিএনপি নেতা টুকু-দুলু

ডেস্ক রিপোর্ট : খালেদা জিয়ার প্রার্থিতার বৈধতা প্রশ্নে বিভক্ত আদেশের পর বিষয়টির সুরাহা করতে হাইকোর্টের তৃতীয় বিচারকের কাছে পাঠিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। বিচারপতি জে বি এম হাসানের বেঞ্চই এখন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবে। এদিকে, বিএনপি নেতা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর মনোনয়ন প্রশ্নে চেম্বার জজ আদালতের স্থগিতাদেশ বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। ফলে, নির্বাচনে লড়ার সুযোগ থাকছে না দুলু ও টুকুর।

খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা প্রশ্নে মঙ্গলবার বিভক্ত রায় দেয় বিচারপতি সৈয়দ রিফাত আহমেদ ও বিচারপতি ইকবাল কবীরের হাইকোর্ট বেঞ্চ। এরপর বিষয়টি সুরাহার জন্য আদেশের নথি পাঠানো হয় প্রধান বিচারপতির কাছে। তবে হাইকোর্ট বেঞ্চের দুই বিচারকের মতামত নথিতে পরিষ্কার না হওয়ায় সেটি সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে ফেরত পাঠান প্রধান বিচারপতি।

এরপর বিকেলে বিচারপতি জে বি এম হাসানের বেঞ্চ গঠন করেন প্রধান বিচারপতি। তৃতীয় বিচারকের আদেশই হাইকোর্টের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বলে গণ্য হবে। তবে এ আদেশের বিরুদ্ধে সংক্ষুব্ধ পক্ষ আপিল করলে তার সুরাহা হবে আপিল বিভাগে।

এদিকে, বিএনপি নেতা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর মনোনয়নের বৈধতা প্রশ্নে চেম্বার জজ আদালতের স্থগিতাদেশ বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। ফলে তাদের নির্বাচনে আর যাওয়ার আর কোনো সুযোগ থাকছে না।

অন্যদিকে, এক আইনজীবীর করা রিটের পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসকদের রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ কেন অবৈধ হবে না- জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *